চাকরি খুঁজব না, উল্টো চাকরি দেব: যবিপ্রবি উপাচার্য

 চাকরি খুঁজব না, উল্টো চাকরি দেব: যবিপ্রবি উপাচার্য
  © টিডিসি ফটো

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেছেন, ইন্ডাস্ট্রির চাহিদা মোতাবেক দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি করতে যবিপ্রবি দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। একই সাথে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের স্লোগান হলো 'আমরা খুঁজব না, আমরা চাকরি দেব'।

বুধবার (০৫ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই) বিভাগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত 'ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া লিংকেজ' শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, শিক্ষকরা হলেন মানুষ গড়ার কারিগর।  তাঁরা যত উন্নত হবেন, তত ভালো প্রডাক্ট বানাতে পারবেন অর্থাৎ দেশের জন্য তাঁরা দক্ষ ও মানসম্মত নাগরিক তৈরি করতে পারবেন।ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া উন্নত বিশ্বে অনেক পুরোনো হলেও আমাদের দেশের জন্য এটা একটা নতুন ধারণা। বর্তমান মার্কেটের উপর নির্ভর করে আমাদের কারিকুলাম যদি এগিয়ে না নিতে পারি, তাহলে আমাদের দেশের অর্থনীতি সামনের দিকে যেতে পারবেনা। প্রাথমিক অবস্থায় একটি দেশের প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য ক্ষুদ্র শিল্পগুলো হচ্চে মূল ভিত্তি। সুইস কন্টাক্টকে এ ধরণের প্রোগ্রাম হাতে নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানাই। 

অনুষ্ঠানের শুরুতে সুইচ কন্টাক্টের অধীনে যশোরের লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং ও যবিপ্রবির আইপিই বিভাগের মধ্যে চলমান সম্মিলিত কার্যক্রম তুলে ধরা হয়। আইপিই বিভাগের শিক্ষার্থীরা কোর্সের বিষয়গুলো যশোরের বিভিন্ন ওয়ার্কশপে গিয়ে হাতে কলমে শিখে এবং বইয়ের পড়া বিষয়গুলোর প্রয়োগের অভিজ্ঞতা অর্জন করে কিভাবে উপকৃত হচ্ছে সেটি উপস্থাপন করেন।

অনুষ্ঠানে সুইজারল্যান্ড দূতাবাস, বাংলাদেশ এর প্রতিনিধি ও সুইচ কন্টাক্ট বাংলাদেশের সিনিয়র ম্যানেজার মেহজাবিন আহমেদ বলেন, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং সেক্টরে যারা কাজ করছেন তাদের কারিগরি জ্ঞান অনেক ভালো। যদি লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং ও একাডেমির মধ্যে লিংকেজ করা যায় তাহলে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং সেক্টরের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরাও উপকৃত হতে পারবেন। এর ধারাবাহিকতায় আইপিই বিভাগের ৯ টি কোর্সের অনুমোদন নেওয়া হয়েছে, যেখানে ইন্ডাস্ট্রি ও একাডেমিয়া এর লিংকেজ থাকবে।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের সভাপতি ও যবিপ্রবির আইপিই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. এএসএম মুজাহিদুল হক, যশোর মিউনিসিপালিটি'র মেয়র মো. হায়দার গণি খান, সুইচ কন্টাক্ট, বাংলাদেশের সিনিয়র ম্যানেজার মেহজাবিন আহমেদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসি এর পরিচালক প্রফেসর ড. মো. নাজমুল হাসান, যশোর পৌরসভার প্যানেল মেয়র শেখ মোকসিমুল বারী প্রমুখ।

এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প মালিক সমিতি, যশোরের সভাপতি মোহাম্মদ আলী সহ আইপিই বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আইপিই বিভাগের লেকচারার শোয়েব মোহাম্মদ।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখে যবিপ্রবির আইপিই বিভাগ এবং বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প মালিক সমিতি, যশোর শাখা এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সাক্ষরিত হয়। তাঁর অংশ হিসেবে যবিপ্রবির আইপিই বিভাগের শিক্ষার্থীরা যশোরের ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ গুলোতে ব্যবহারিক ক্লাস এবং হাতে কলমে কাজ করার সুযোগ পান।


সর্বশেষ সংবাদ