ছাত্রলীগের সম্মেলন নিয়ে যা বললেন সভাপতি জয়

আল নাহিয়ান খান জয়
ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়  © ফাইল ফটো

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গত ২ এপ্রিল আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোকে চলতি বছরই সম্মেলনের নির্দেশনা দেন। আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচনের আগে শুধু জাতীয় সম্মেলন নয়, সহযোগী সংগঠন যাদের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে, তাদেরকেও সম্মেলন করতে হবে। এ সময় সম্মেলন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দেন তিনি।

ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের পর ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে সম্মেলন নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেছেন, আওয়ামী লীগের দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা পেলে সম্মেলনের প্রস্তুতি নেওয়া হবে।

একটি গণমাধ্যমকে জয় আরও বলেন, ‘একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পর আমরা দায়িত্ব পেয়েছিলাম। সেই দায়িত্ব পাওয়ার পর গঠনতন্ত্র অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হয়েছে আমাদের। আমরা এখন সম্মেলনের জন্য প্রস্তুত। ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কখন সম্মেলন হবে, তিনিই নির্দেশনা দেবেন। নির্দেশনা পেলে আমরা গণমাধ্যমকে জানিয়ে দেব।

আরো পড়ুন: নতুন কমিটি গঠনে মত জানালেন ছাত্রদলের ৪৩ নেতা

আওয়ামী লীগের একটি সূত্র জানিয়েছে, ছাত্রলীগের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ হতে পারে চলতি মাসেই। আগামী সেপ্টেম্বরে সম্মেলন হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে। তবে বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয় বলে জানা গেছে। আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও গোলাম রাব্বানীর নেতৃত্বে ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়। এক বছর পর ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেওয়া হয়। তবে ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর দুর্নীতি, অনিয়ম ও চাঁদাবাজির অভিযোগে শোভন-রাব্বানীকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান আল নাহিয়ান খান জয় ও লেখক ভট্টাচার্যকে। ২০২০ সালের ৪ জানুয়ারি পূর্ণাঙ্গ দায়িত্ব পান তারা।


সর্বশেষ সংবাদ