ইরানের মোস্তফা পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

পুরস্কার
পদার্থ বিজ্ঞানী জাহিদ হাসান  © ফাইল ফটো

ইরানে মুস্তফা (সা.) পুরস্কার বিজয়ী পাঁচ বিজ্ঞানীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। বিজয়ীদের মধ্যে এক বাংলাদেশি বিজ্ঞানী রয়েছেন। বাংলাদেশের পদার্থ বিজ্ঞানী জাহিদ হাসান। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করছেন। 

ইরানের গণমাধ্যম তাসনিম নিউজ এজেন্সি এ তথ্য জানায়।

ইরানের মুস্তফা (সা.) ফাউন্ডেশন দুই বছর পরপর বিশ্বের শ্রেষ্ঠ মুসলিম বিজ্ঞানী ও গবেষকদের পুরস্কৃত করে থাকে। ২০১৫ সালে চালু হওয়া এ পুরস্কারকে ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর মুসলমান বিজ্ঞানীদের জন্য ‘নোবেল’ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

শ্রেষ্ঠ প্রবাসী মুসলিম বিজ্ঞানী হিসেবে এবার যৌথভাবে বিজয়ী হয়েছেন বাংলাদেশের পদার্থ বিজ্ঞানী জাহিদ হাসান ও ইরানের বিজ্ঞানী কামরান ওয়াফা।

বাংলাদেশের জাহিদ হাসান যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করছেন। ইরানের কামরান ওয়াফা অধ্যাপনা করছেন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে।

এ ছাড়া এবার স্বদেশে বসবাসকারী শ্রেষ্ঠ মুসলিম বিজ্ঞানী হিসেবে যৌথভাবে বিজয়ী হয়েছেন মরক্কোর ইয়াহিয়া তিয়ালাতি, লেবাননের মুহাম্মাদ সানেগ ও পাকিস্তানের মুহাম্মাদ ইকবাল চৌধুরী।

এর আগে আরও তিন দফায় ৯ জন শ্রেষ্ঠ মুসলিম বিজ্ঞানীকে পুরস্কার দেওয়া হয়। তারা হলেন- ইরান, সিঙ্গাপুর, তুরস্ক ও জর্ডানের নাগরিক। প্রত্যেক বিজয়ীকে মুস্তফা (সা.)-এর পুরস্কারের ক্রেস্ট ও নগদ অর্থ দেওয়া হয়।

ইরান সরকারের সহায়তায় মুস্তফা ফাউন্ডেশন শিক্ষা ও গবেষণাকে উৎসাহিত করা লক্ষ্যে ইসলামি দেশসমূহের মুসলিম বৈজ্ঞানিকদের উৎসাহ দিতে এ পুরস্কারের আয়োজন করে। মুস্তফা পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের মুসলিম হতে হয়, তবে লিঙ্গ এবং বয়স সম্পর্কিত অন্য কোনো সীমাবদ্ধতা নেই।

১২ রবিউল আউয়াল তারিখে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। বিজয়ীরা পাবেন ১ মিলিয়ন ডলার। যৌথভাবে বিজয়ীরা পুরস্কারের অর্থ সমানভাগে ভাগ করে নেবেন।

চার ক্যাটাগরিতে দেওয়া হয় মোস্তফা পুরস্কার। এগুলো হলো- তথ্য এবং যোগাযোগ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি; জীবন এবং চিকিৎসা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি; ন্যানোসায়েন্স ও ন্যানো টেকনোলজি এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সব ক্ষেত্র।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ