নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর কর আরোপ ছাত্র স্বার্থবিরোধী

প্রতিবাদে সমাবেশে
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শাহবাগে প্রতিবাদে সমাবেশে   © টিডিসি ফটো



বেসরকারি কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় সমূহের উদ্বৃত্ত আয়ের উপর ১৫ শতাংশ কর আরোপকে 'ছাত্র স্বার্থবিরোধী' আখ্যা দিয়ে এর প্রতিবাদে ছাত্র সমাবেশ করেছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। প্রস্তাবিত করের মাধ্যমে সরকার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে অবৈধ মুনাফা অর্জনের সুযোগ করে দিচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার (৮ জুন) বিকালে 'নো ট্যাক্স অন এডুকেশন'-এর ব্যানারে রাজধানীর শাহবাগ চত্বরে জাতীয় জাদুঘরের সামনে এ সমাবেশ শিক্ষার্থীরা এ সব কথা বলেন। সমাবেশ শেষে একটি মিছিল শাহবাগ থেকে কাটাবন মোড় ঘুরে পরে শাহবাগে এসে শেষ হয়।

সমাবেশ শেষে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তামজিদ হায়দার। আগামী ১০ তারিখ ধানমন্ডির শঙ্করে বিক্ষোভ সমাবেশ ও ১১ তারখি বিকাল ৩ টায় একই দাবিতে রাজধানীর রামপুরায় ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা করেন তিনি৷

সমাবেশে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী চঞ্চল বলেন, 'বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০১০-এ স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ রয়েছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ সম্পূর্ণ অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচালিত হবে। কিন্তু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমূহ আজকে মুনাফা অর্জনের কারখানায় পরিণত হয়েছে। ২০১০ সালের আইন অনুযায়ী বলা চলে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের মালিক পক্ষ যে মুনাফা অর্জন করছে তা সম্পূর্ণ রূপে অবৈধ'।

তিনি বলেন, ২০১০ সালে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ওপর যখন ভ্যাট আরোপ করা হয়েছিল তখন সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল শিক্ষার্থীদের ভ্যাট দিতে হবে না, ভ্যাট দিবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কিন্তু আমরা দেখেছি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থীদের ওপর ভ্যাট চাপিয়ে দিয়েছে। পরবর্তীতে ছাত্র আন্দোলনের চাপে সরকার ভ্যাট প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয়েছিল। কিন্তু ১০ বছর পর আবার ট্যাক্স আরোপ করা হলো। এই ট্যাক্স আরোপরের ফলে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের শিক্ষার ব্যায়ভার বেড়ে যাবে। এই সিদ্ধান্ত অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে।

সরকার অবৈধ মুনাফাকে বৈধ করার চেষ্টা করছে দাবি করে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নুসরাত ফারিন বিজেতা বলেন, সরকার নিজেদের ভুলগুলো ধামাচাপা দিতে এ ভ্যাট আরোপ করেছে।

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির ছাত্র সজিব মিয়া, শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার। এই মৌলিক অধিকারের উপর ভ্যাট বসানো হলো। তবে কি আমরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে এসে অন্যায় করেছি? তিনি বলেন, করোনার প্রভাবে গত দেড় বছর ধরে সরাসরি পাঠ কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও শিক্ষার্থীদের কাছে সেমিস্টার ফি আদায় করা হচ্ছে। প্রত্যেকটা প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি একটা বিজনেস সেন্টার এটা সবাই জানে। কিন্তু সরকার এ ব্যাপারে কোনো কথা বলছে না।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গ্রিন ইউনিভার্সিটির ছাত্র শ্যাম দাস, বিইউবিটি শিক্ষার্থী অন্তু অরিন্দম, ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আলী তুষার, ইস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রায়হান হৃদয়, নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী দীপা মল্লিক প্রমুখ৷


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ