বিশ্বসেরা এমবিএ স্কুল র‍্যাংকিংয়ে নতুন মুখ

র‌্যাংকিং
লোগো

সম্প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিজনেস স্কুলের এমবিএ র‍্যাংকিং প্রকাশ করেছে দ্য ইকোনমিস্ট ও ফিন্যান্সিয়াল টাইমস। এতে দ্য ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের সেরা এমবিএ প্রোগ্রামের র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষস্থান দখল করে নিয়েছে ফ্রান্সের ইনসিড। অন্যদিকে ইকোনমিস্টের র‍্যাংকিংয়ে এবার নয় স্থান এগিয়ে শীর্ষ স্থান দখল করে নিয়েছে স্পেনের আইইএসই বিজনেস স্কুল।

দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, বহু বছরের প্রথা ভেঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি শীর্ষ বিজনেস স্কুল এ বছর দ্য ইকোনমিস্ট ও ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের এমবিএ র‍্যাংকিংয়ে অংশ নেয়নি। অংশ নেয়নি হার্ভার্ড বিজনেস স্কুল, ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভেনিয়ার বিখ্যাত ওয়ার্টন স্কুল, কলম্বিয়া বিজনেস স্কুল ও স্ট্যানফোর্ড স্কুল অব বিজনেস। তাই বেশকিছু বড় স্কুল অংশ না নেওয়ায় অন্যান্য স্কুলগুলো তালিকার উপরের দিকে উঠে এসেছে।

বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, করোনা মহামারির কারণে র‍্যাংকিংয়ে অংশ নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় উপাত্ত সংগ্রহ কঠিন হয়ে পড়ায় নিজেদের বিরত রেখেছে তারা।

গ্রাহাম হোল্ডিংস কোম্পানির শিক্ষা বিষয়ক অঙ্গ প্রতিষ্ঠান কাপলানের করা এক জরিপ অনুসারে, মোটাদাগে এ বছর ৬২ শতাংশ বিজনেস স্কুল কোনো না কোনো র‍্যাংকিংয়ে অংশ নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। একইসঙ্গে র‍্যাংকিংয়ে অংশ নেওয়া থেকে বিরত থাকবে বলে জানিয়েছে ১০ শতাংশ স্কুল।

প্রধান তালিকাগুলোর মধ্যে এবার র‍্যাংকিং প্রকাশ স্থগিত রেখেছে ব্লুমবার্গ বিজনেসউইক। অন্যদিকে গত মাসে প্রকাশিত ইকোনমিস্টের তালিকা থেকে বাদ পড়েছে বেশ কয়েকটি বিখ্যাত স্কুল। ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের এক মুখপাত্র জানান, সচরাচর তাদের র‍্যাংকিংয়ে অংশ নেওয়া স্কুলগুলো এবার বিরত থেকেছে।

হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের মুখপাত্র ব্রায়ান কেনি বলেন, র‍্যাংকিংয়ের বিরোধী নয় স্কুলটি। কিন্তু মহামারির মধ্যে ‘রিমোট লার্নিং’ পদ্ধতিতে ক্লাস চলার কারণে সকল প্রয়োজনীয় উপাত্ত সংগ্রহ করতে কয়েক মাস লেগে যেতে পারে স্কুলটির। যে কারণে, এবারের র‍্যাংকিংয়ে অংশ নেয়নি হার্ভার্ড। সাধারণত তালিকার শীর্ষে থাকে স্কুলটি। তাই এক বছর র‍্যাংকিংয়ে না থাকলেও স্কুলটির উপর এর খুব একটা প্রভাব পড়বে না।

এদিকে স্ট্যানফোর্ডের এক মুখপাত্র জানান, ইতিমধ্যে চাপযুক্ত একটি বছরে কেবল র‍্যাংকিংয়ের জন্য আলাদা করে বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের উপর নানা জরিপের বোঝা চাপাতে চায়নি স্কুলটি।

একইভাবে ফিন্যান্সিয়ালন টাইমসের প্রকাশিত তালিকায় চতুর্থ স্থানে ইয়েল স্কুল অব ম্যানেজম্যান্ট জানিয়েছে, গত বছরের বসন্তে উপাত্ত সংগ্রহের সক্ষমতা না থাকায় ইকোনমিস্টের র‍্যাংকিংয়ে অংশ নেয়নি তারা।

ইকোনমিস্টের র‍্যাংকিংয়ে স্পেনের আইইএসই বিজনেস স্কুল ছাড়াও শীর্ষ পাঁচে আছে মিশিগানের রস স্কুল অব বিজনেস, নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির স্টার্ন স্কুল অব বিজনেস ও জর্জিয়া টেক এর শেলার কলেজ অব বিজনেস।

ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের মুখপাত্র ক্যাটরিনা ফেডসজুক জানান, ডিগ্রি সম্পন্ন করতে উচ্চ খরচ বিবেচনায় শিক্ষার্থীরা কোথায় পড়তে চান সে বিষয়ে সহায়ক তথ্য আগ থেকেই তাদের কাছে থাকা উচিত। যে কারণে, এবার আগেভাগেই সেরা স্কুলের তালিকা প্রকাশ করেছে ফিন্যান্সিয়াল টাইমস।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ