মহানবীর কটূক্তিকারীদের বিরুদ্ধে ভারত ব্যবস্থা নিয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ  © ফাইল ছবি

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর অবমাননা যেখানেই হোক, আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই। প্রতিবেশী দেশে যারা এ ধরনের বক্তব্য দিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ভারত সরকার আইনগত ব্যবস্থা নিয়েছে, এ জন্য ভারত সরকারকে ধন্যবাদ।

শুক্রবার (১০ জুন) সন্ধ্যায় গাইবান্ধা পৌর শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

একইসঙ্গে এ ধরনের ঘটনা নিয়ে অহেতুক বিভ্রান্তি বা উস্কানির বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থার কথা বলেছেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, প্রকৃতপক্ষে কোনো ধর্মের অবমাননাই আমরা বরদাশত করি না এবং অন্য দেশের ঘটনা নিয়ে কেউ যদি এ দেশে বিশৃঙ্খলার অপচেষ্টা চালায়, সেটি কঠোর হাতে দমন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ইসলামের জন্য যা করেছেন, অতীতের কোনো সরকার তা করেনি। আলেম ওলামাদের শত বছরের পুরনো দাবি স্বতন্ত্র ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয় কেউ প্রতিষ্ঠা করেনি, বঙ্গবন্ধুকন্যা করেছেন।

আরও পড়ুন: ভারতে মহানবীকে অবমাননা, দেশে ক্যাম্পাসে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ

‘‘বহু বছরের পুরনো কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতিও শেখ হাসিনাই দিয়েছেন, পাশকৃতদের সরকারি চাকুরিও দিয়েছেন। সারাদেশে স্থাপিত এক লাখ মসজিদভিত্তিক মক্তবের আলেম ৫২'শ টাকা করে ভাতা পাচ্ছেন। এখন হজে যাবার সময় ঢাকায় ইমিগ্রেশন হয়ে যাচ্ছে। প্রতিটি জেলা-উপজেলায় ৫৬০টি মডেল মসজিদ প্রতিষ্ঠা হয়েছে, যা কেউ কখনো ভাবেনি।’’

সরকারের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত সাড়ে ১৩ বছরে প্রতিটি মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়েছে, করোনার মধ্যেও দেশ এগিয়ে গেছে, নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু হয়েছে, বিশ্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। কিন্তু এ উন্নয়ন ও পদ্মা সেতু হয়ে যাওয়ায় বিএনপি ও তাদের কিছু মিত্রদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। তারা আবার ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে। আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে তাই সতর্ক থাকতে হবে।


x