গতি কমেছে অশনির, উপকূলে আঘাত হানবে কিনা জানা যাবে ‍দুপুরে

ঘূর্ণিঝড় অশনি
গতি কমে এসেছে ঘূর্ণিঝড় অশনির  © সংগৃহীত

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র গতি কমে এগেছে। সোমবার (১০ মে) উপকূলের কাছাকাছি যাওয়ার সময় এর গতি কমতে থাকে। আজ দুপুর নাগাদ আসনির অগ্রভাগ পৌঁছাতে পারে প্রতিবেশী ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তমে। এ ছাড়া ওড়িশার দিকেও ঘোরার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে স্থলভাগে এটি ঘূর্ণিঝড় আকারে ওঠার সম্ভাবনা কম বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

তারা বলছেন, অশনির সাগরেই শেষ হবে। তবে গভীর নিম্নচাপ আকারে স্থলভাগে উঠবে। এতে অন্ধ্র প্রদেশ, ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গ প্রচুর বৃষ্টি হবে। এ ছাড়া বাংলাদেশে সুন্দরবন, মোংলা, খুলনা, সাতক্ষীরায় ঝোড়ো বাতাস ও ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে। এ ছাড়া বাংলাদেশেও বৃষ্টি হবে। বিশেষ করে খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রামে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে অশনির কারণে সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবিলায় ইতোমধ্যে উপকূলে স্বেচ্ছাসেবীরা মাইকিং করেছেন। ইতিমধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সাগর উত্তাল রয়েছে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রাসমুদ্রকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। মাছ ধরার ট্রলার ও নৌকাকে উপকূলের কাছাকাছি সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, সোমবার দুপুর পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়টি ঘণ্টায় ২৫ কিলোমিটার করে আগায়। রোববার ব্যাপক শক্তি সঞ্চয় করেছিল এটি। সোমবার সকালে এর কেন্দ্রে ঘণ্টায় ১১০ কিলোমিটার পর্যন্ত গতি ছিল। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১১৭ কিলোমিটার হয়। এরপর গতি ও শক্তি কমতে শুরু করে। উপকূলের পৌঁছানোর সময় এর সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকতে পারে ৭৫ থেকে ৯৫ কিলোমিটার।

আবহাওয়াবিদরা বলছেনন, আজ সারাদিন সাধারণ ঘূর্ণিঝড় হিসেবে থাকতে পারে এটি। কাল রাতে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। এ প্রক্রিয়া শুরু হবে বেলা ১২টার পরে। 

আরো পড়ুন: গায়ে আগুন দিয়ে জড়িয়ে ধরেছিলেন সাবেক স্বামী, মারা গেলেন সেই তরুণী

এ বিষয়ে বুয়েটের পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. এ কে এম সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘সাগরে থাকার সময় ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কে শতভাগ সঠিক পূর্বাভাস সম্ভব নয়। কেননা এটি যে কোনো সময়ে ঘুরে যেতে পারে। 

আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ বলেন, সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় অশনি পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ছিল। এ ছাড়া মোংলা থেকে ৯৮০ কিলোমিটার, চট্টগ্রাম থেকে ১১০০ ও কক্সবাজার থেকে ১০৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ছিল।


x