হাবিপ্রবির উপাচার্যের বাসভনের সামনে ছাত্রলীগের অবস্থান

হাবিপ্রবি উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা
হাবিপ্রবি উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা

দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। আন্দোলনকারীরা বলছেন, শিক্ষার্থীদের দাবি নিয়ে তাঁরা উপাচার্যের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু এতে তারা উপাচার্যের সাড়া পাননি।

মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে ছাত্রলীগের এই কর্মসূচি শুরু হয়। রাত ৮টা পর্যন্ত তাদের কর্মসূচি চলছিল। পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপাচার্যের সঙ্গে আলোচনায় বসেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

অবস্থান কর্মসূচি চলাকালে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা থেমে থেমে উপাচার্যের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেন। ছাত্রলীগের পাশাপাশি চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে উপাচার্যের বাসভবনে অবস্থান নিয়েছেন মাস্টাররোলে বিভিন্ন পদে কর্মরত ৭২ জন কর্মচারী।

ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বলছেন, করোনার বন্ধের শুরু থেকে বিভিন্ন দাবিতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপাচার্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা জানান। কখনো লিখিতভাবে, মুঠোফোনে খুদে বার্তা পাঠিয়ে তাঁরা যোগাযোগের চেষ্টা করেন। কিন্তু উপাচার্য তাঁদের কথায় কোনো কর্ণপাত করেননি।

সর্বশেষ মঙ্গলবার সকালে একাধিকবার ফোন দিয়েও সাড়া না পেয়ে ভিসির বাসভবনে এসে অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করেন ছাত্রলীগের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ রাসেল হলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোরশেদুল আলম বলেন, করোনাভাইরাস আসার আগে থেকেই উপাচার্য তাঁর বাসভবন থেকে বের হননি। বিশ্ববিদ্যালয়ের যাবতীয় কাজ তিনি বাসাতে বসেই করছেন। তিনি শিক্ষার্থীদের কোনো অভিযোগ শুনতে চান না। বিভিন্ন জাতীয় দিবসের কোনো কর্মসূচিতেও অংশ নেন না।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় সেমিস্টার ফি, যানবাহন সংকট, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলতে চাইলে তিনি সময় দেন না। এমনকি ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেননি তিনি। ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে অনলাইনে উদ্বোধনের দাওয়াতও তিনি গ্রহণ করেননি।

বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার ফজলুল হক বলেন, শিক্ষার্থীরা তাদের বিভিন্ন দাবি নিয়ে উপাচার্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে এসেছে। তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসেছি। যেহেতু বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা আছে, সুতরাং খুব কম সময়ের মধ্যে নিয়োগপ্রক্রিয়ার কাজ শুরু করা হবে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ