এইচএসসির ফল প্রকাশের তারিখ চূড়ান্ত হয়নি

এইচএসসির ফল প্রকাশের তারিখ ঠিক হয়নি
এইচএসসির ফল প্রকাশের তারিখ ঠিক হয়নি  © ফাইল ছবি

আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সালের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের যে তারিখ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রচার হচ্ছে সেটি সঠিক নয়। এখন পর্যন্ত ফল প্রকাশের নির্দিষ্ট কোনো তারিখও চূড়ান্ত করেনি বোর্ড। তবে নির্দিষ্ট কোনো তারিখ ঠিক না হলেও ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে হতে পারে এ পরীক্ষার ফল।

মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানায়, পরীক্ষা শেষ হওয়ার এক মাসের মধ্যে ফল প্রকাশের বাধ্য বাধকতা থাকলেও সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ফল প্রকাশে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে। তবে বিলম্ব হলেও ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে এর ফল প্রকাশ হতে পারে। সেই লক্ষ্যে কাজ করছেন দেশের সব শিক্ষা বোর্ড।

আরও পড়ুন: ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে হতে পারে এইচএসসির ফল

এদিকে, বেশ কয়েকদিন যাবৎ সামাজিক যোগাযোমাধ্যম ফেসবুকে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদের সূত্র ব্যবহার করে আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের বিষয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন। ব্যবহারকারীরা বিভিন্ন নামে-বেনামে ফেসবুক পেজ-গ্রুপ থেকে এ ধরনের প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন।

এসব ফেসবুক পোস্টে দাবি করা হচ্ছে, ‘‘আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত হতে যাচ্ছে, এইচএসসি-২১ এর ফলাফল। সূত্র: ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান নেহাল আহমেদ!’’

আরও পড়ুন: সব বিষয়ে পরীক্ষা নিতে চায় বোর্ড

এভাবে একের পর এক ভুল প্রচারণায় ছেয়ে গেছে ফেসবুক

তবে বিষয়টি সঠিক নয় বলেই দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে নিশ্চিত করেছেন আন্তঃশিক্ষা সমন্বয় বোর্ড সাব কমিটির সভাপতি ও ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ। তিনি বলেন, ফল প্রকাশের নির্দিষ্ট তারিখ বোর্ড এখনো নির্ধারণ করেনি। এ ধরনের বিভ্রান্তিকর প্রচারণা থেকে বিরত থাকতে হবে।

এর আগে, গত ২ ডিসেম্বর থেকে সারা দেশে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়ে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। করোনাভাইরাসের কারণে এবার নিজ নিজ বিভাগের তিনটি বিষয়ের উপর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আরও পড়ুন: ২০২২ সালের এসএসসি-এইচএসসি কীভাবে, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক এস এম আমিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল তৈরির কাজ শুরু হচ্ছে। নতুন পদ্ধতিতে এ বছরের পরীক্ষা হওয়ায় ফল প্রকাশের জন্য একটি নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে। সেজন্য দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকরা বৈঠক করে এসব বিষয়ে প্রস্তাবনা তৈরি করবেন।

ফল প্রকাশের বিষয়ে অধ্যাপক নেহাল বলেছেন, ৩০ দিনের মধ্যে যাতে ফল প্রকাশ করতে পারি সেই লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে, ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা যাবে। তবে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের তিনটি বিষয়ের পরীক্ষা হলেও তাদের পত্র কিন্তু ছয়টি। তাই কিছুটা সময় লাগছে।


মন্তব্য

x