বাতিল হতে পারে পশ্চিমবঙ্গের মাধ্যমিক পরীক্ষা

বাতিল হয়ে যেতে পারে পশ্চিমবঙ্গের মাধ্যমিক পরীক্ষা
করোনার কারণে বাতিল হয়ে যেতে পারে পশ্চিমবঙ্গের মাধ্যমিক পরীক্ষা  © হিন্দুস্তান টাইমস

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে নির্ধারিত সূচি মেনে মাধ্যমিক নেওয়া কার্যত অসম্ভব। তবে পরীক্ষা বাতিল হবে নাকি আরও পিছিয়ে যাবে, সে বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার। এমনটাই জানিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

মঙ্গলবার পর্ষদের কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, আপাতত রাজ্যে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি যেরকম আছে, সেরকম যদি চলতে থাকে, তাহলে নির্ধারিত সূচি মেনে মাধ্য়মিক নেওযা সম্ভব নয়। সে পরিস্থিতিতে আদৌও মাধ্যমিক হবে নাকি সিবিএসই এবং আইসিএসই দশম শ্রেণির মতো পরীক্ষা বাতিল হয়ে যাবে, সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ১ জুন থেকে মাধ্যমিক শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। অর্থাৎ সূচি মেনে পরীক্ষা হলে হাতে মাত্র ২০ দিন পড়ে আছে। সে পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের বক্তব্য, পরীক্ষা নিয়ে উৎকণ্ঠা ক্রমশ বাড়তে থাকায় পড়াশোনায় কার্যত মন বসছে না। তাই পরীক্ষা আদৌও হবে কিনা, তা স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেওয়া হবে।

অভিভাবকদের বক্তব্য, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষা শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা নিয়ে উদ্বেগ কম নেই। সেইসঙ্গে রাজ্যে সম্পূর্ণ লকডাউন না হলেও কড়া বিধিনিষেধ জারি হয়েছে। বন্ধ হয়ে গিয়েছে লোকাল ট্রেন। প্রাথমিকভাবে ১৯ মে পর্যন্ত পরিষেবা বন্ধ রাখা হবে। সেইসঙ্গে বাস, মেট্রোর মতো গণপরিবহনে যাত্রী সংখ্যা ৫০ শতাংশে নামিয়ে আনা হয়েছে।

ফলে স্বভাবতই শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের প্রশ্ন, যদিও বা পরীক্ষা হয়, তাহলে পরীক্ষাকেন্দ্রে কীভাবে পৌঁছানো যাবে? সেই পরিস্থিতিতে দ্রুত মাধ্যমিকের ভবিষ্যৎ স্পষ্ট করার দাবি তোলা হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য় বসু জানিয়েছিলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনা করা হবে। তারপর যত দ্রুত সম্ভবত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তিনিও সোমবার নয়া মন্ত্রিসভায় শপথ নিয়েছেন। তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাড়িতে আছেন।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ