ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাবির শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ১৭ এপ্রিলের মধ্যে টিকা দিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ

ঢাবির শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ১৭ এপ্রিলের মধ্যে টিকা দিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ
একাডেমিক কাউন্সিলের এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়  © টিডিসি ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আবাসিক হলসমূহ আগামী ১৭ মে খুলে দেয়া হবে। হল খোলার দু’সপ্তাহ পর শ্রেণি কার্যক্রম ও পরীক্ষা শুরু হবে। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে আগামী ১৭ এপ্রিলের মধ্যে কোভিড-১৯ টিকার প্রথম ডোজ প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে  অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে একাডেমিক কাউন্সিলের এক জরুরি সভায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত সভায় প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্যগণ অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন।

জরুরি এই সভায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অনার্স শেষ বর্ষ এবং মাস্টার্স ফাইনাল পরীক্ষা গ্রহণের জন্য আগামী ১৩ মার্চ থেকে আবাসিক পরীক্ষার্থীদের হলে রাখা বিষয়ক পূর্ব গৃহীত সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়। এ উপলক্ষ্যে প্রণীত পরীক্ষার সকল সূচিও স্থগিত করা হয়।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ১৭ মে আবাসিক হল খোলার আগে নতুন কোন পরীক্ষার সূচি ঘোষণা করা হবে না।

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকা দানের মহতী, সাহসী ও মানবিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর সরকারকে ধন্যবাদ জানানো হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণের চার সপ্তাহ পর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে ওঠে। তাই আগামী ১৭ এপ্রিলের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকার প্রথম ডোজ প্রদান সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ