হল ছাড়তে চায় না শিক্ষার্থীরা, প্রশাসনকে উল্টো হুশিয়ারি

তালা ভেঙে বিভিন্ন হলে অবস্থান করছে জাবি শিক্ষার্থীরা
তালা ভেঙে বিভিন্ন হলে অবস্থান করছে জাবি শিক্ষার্থীরা  © ফাইল ফটো

আদেশ অমান্য করে যেসব শিক্ষার্থী বন্ধ হলে অবস্থান করছে সেসব শিক্ষার্থীদেরকে সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এদিকে কর্তৃপক্ষের নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করে পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আবাসিক হলে শিক্ষার্থীদের থাকার সুব্যবস্থা এবং গেরুয়া গ্যাং এর বিচার না করতে পারলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত অফিস, কোয়ার্টার, প্রক্টর স্যার, ভিসি ম্যামসহ সকল বাসায় তালা ঝুলিয়ে দেয়া হবে।

এর আগে গতকাল রবিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) রহিমা কানিজ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানানাে যাচ্ছে যে, বৈশ্বিক মহামারী কোভিড-১৯ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার জন্য সরকারি নির্দেশে দেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ন্যায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়েও ১৯ মার্চ থেকে অদ্যবধি ক্লাস ও হল বন্ধ রয়েছে (তবে অনলাইন ক্লাস চালু রয়েছে)।

এতে বলা হয়, কিন্তু গত ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা থেকে কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থী সরকারি নির্দেশ অমান্য করে কোন কোন আবাসিক হলে জোরপূর্বক প্রবেশ করে অবস্থান নিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদেরকে ২২ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টার মধ্যে নিজ উদ্যোগে হল ত্যাগ করতে নির্দেশ দিচ্ছে। অন্যথায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।

গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ক্রিকেট টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করে স্থানীয়রা। এ হামলায় অন্তত ৪০ জন শিক্ষার্থী ও ৪ জন স্থানীয় বাসিন্দা আহত হন। এর মধ্যে অন্তত ১১ জন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। স্থানীয় বাসিন্দা ও শিক্ষার্থীদের এমন সংঘর্ষে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো এলাকায়।

পরে শনিবার মেসগুলোতে অবস্থান করতে ‘নিরাপত্তার অভাব’ দেখিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়ার দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। তবে সরকারের নির্দেশনা ছাড়া হল খোলা সম্ভব নয় বলে দাবি করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ওই দিনই সবগুলো আবাসিক হলের তালা ভেঙে হলে প্রবেশ করেন শিক্ষার্থীরা।

তালা ভেঙে হলে প্রবেশ করার পর ছেলেদের সবগুলো হলে শিক্ষার্থীরা অবস্থান করতে শুরু করেন। তবে মেয়েদের হলগুলোতে পুনরায় তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে জাবি প্রশাসন।

হল খোলার বিষয়ে এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। তাই হল খোলার ব্যাপারে রাষ্ট্রীয়ভাবে যে সিদ্ধান্ত আসবে সে অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ