রাবি ভিসির অনিয়ম-দুর্নীতি, ইউজিসির তদন্ত প্রতিবেদন পেলেই ব্যবস্থা

ডা. দীপু মনি ও অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান
ডা. দীপু মনি ও অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান  © ফাইল ফটো

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালেয়র (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহানের বিরুদ্ধে আনীত বিভিন্ন প্রশাসনিক ও আর্থিক অনিয়মের অভিযোগের তদন্ত করছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) একটি তদন্ত দল। এ বিষয়ে একটি উন্মুক্ত শুনানির আয়োজনও করেছে ইউজিসি। তবে এ শুনানিতে অংশ নেননি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান।

রাবি উপাচার্যের অনিয়ম-দুর্নীতির তদন্তের ব্যাপারে কথা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি জানান, ইউজিসির তদন্ত প্রতিবেদন পেলেই ব্যবস্থা নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আজ বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে অনলাইনে এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি।

সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রাবি উপাচার্যের ব্যাপারে যে অভিযোগ এসেছে তা তদন্ত করছে ইউজিসি। এই তদন্তে কেউ তার (ইউজিসি) এখতিয়ার আছেন কিনা, সেটি চ্যালেঞ্জ করতে পারেন। তবে ইউজিসির যে দায়িত্ব রয়েছে সেটি পালন করতে হবে। ইউজিসির কাছ থেকে মতামত পাওয়ার পরপরই আমাদের যা করণীয় তাই করবো।

জানা গেছে, রাবি অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহানের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও কমিশনে প্রাপ্ত বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তদন্তে সম্প্রতি একটি কমিটি করে ইউজিসি। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তার কাছ থেকে লিখিত ব্যাখ্যা চাইলে লিখিতভাবে সম্পূর্ণ ব্যাখ্যা দেয়া অসম্ভব দাবি করে এ বিষয়ে ইউজিসিকে উন্মুক্ত শুনানি আয়োজনের আহবান জানান তিনি।

তার এ আহবানে সাড়া দিয়ে গত ১৯ সেপ্টেম্বর ইউজিসি শুনানির আয়োজন করলেও তাতে উপস্থিত হননি রাবি উপাচার্য। তখন তিনি ইউজিসির তদন্ত কমিটির এখতিয়ার নিয়েই প্রশ্ন উত্থাপন করেন।

তার মতে, ইউজিসির তদন্ত কমিটি গঠনের এখতিয়ার নেই। কমিটি গঠনে কমিশনের যে অ্যাক্ট, সেই অ্যাক্টে এই ক্ষমতা নেই। তবে ইউজিসির পক্ষে থেকে জানানো হয়েছে, উপাচার্য শুনানিতে অংশগ্রহণ না করলেও তদন্ত প্রতিবেদন তৈরি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হবে।


মন্তব্য