১২১ বছরের ইতিহাসে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের প্রথম ক্রোড়পত্র

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ
প্রথম ক্রোড়পত্রের মোড়ক উন্মোচন করেন অধ্যক্ষ রুহুল আমিন ভূঁইয়া  © টিডিসি ফটো

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ইতিহাসে এ বছরই  প্রথম কোনো ক্রোড়পত্র প্রকাশ করেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ সাংবাদিক সমিতি (কুভিকসাস)। ১২১ বছরের কুভিকের ইতিহাসে নতুন নতুন অনেক কিছুই সংযোজন বিয়োজন হয়েছে কিন্তু একটি ক্রোড়পত্রও প্রকাশ হয়নি। এই বছর তা করেছে কুভিকসাস।

এতে রয়েছে ভিক্টোরিয়া কলেজের প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ের ইতিহাস ও হোস্টেল গুলোর ইতিহাস, আন্দোলন সংগ্রামে কুভিকের অবদান এছাড়া কুভিকের শিক্ষক ও প্রতিষ্ঠাতার প্রদৌহিত্রের বাণী। রয়েছে কুভিকের ২০২০ সালের সকল কার্যক্রমের বর্ণনা ও কুমিল্লা-৬ আসনের সাংসদ হাজী আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহারের বাণী।

২৫ নভেম্বর(বুধবার) কুভিক অধ্যক্ষ রুহুল আমিন ভূঁইয়ার কার্যালয়ে কুভিকের প্রথম ক্রোড়পত্রের মোড়ক উন্মোচন করেন অধ্যক্ষ রুহুল আমিন ভূঁইয়া।

প্রতিষ্ঠানটির ১২১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে প্রথম ক্রোড়পত্র প্রকাশ করেছে কুভিকসাস। ক্রোড়পত্রের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কুভিক অধ্যক্ষ রুহুল আমিন ভূঁইয়া, উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আবু জাফর খান, শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান, কুভিকসাস সভাপতি আশিক ইরানসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও কুভিকসাসের সদস্যরা।

এ সময় কুভিক শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, এটি ভিক্টোরিয়া কলেজের ইতিহাসে প্রথম ক্রোড়পত্র। আমিও এই কলেজের শিক্ষার্থী তবে আমাদের দ্বারা এটি না হলেও আমাদের শিক্ষার্থীদের দ্বারা তা হয়েছে।

উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আবু জাফর খান বলেন, তথ্য ও তত্বের প্রতিযোগিতায় আমার কলেজের সাংবাদিক সমিতির সদস্যরা এগিয়ে আছে এই ক্রোড়পত্র তার প্রমাণ। ভিক্টোরিয়া কলেজের ইতিহাসে প্রথম ক্রোড়পত্র এত নিখুন আর সুন্দর হবে যা অকল্পনীয়, তবে তা তারা করে দেখিয়েছে।

কলেজের অধ্যক্ষ রুহুল আমিন ভূঁইয়া বলেন, কুভিকের এত তথ্য এক জায়গায় পেয়ে আমি সত্যিই আনন্দিত। আমার শিক্ষার্থীরা তাদের সফলতা দেখিয়েছে। যা আশে পাশের কোন কলেজ করেছে কি না তা অজানা।


মন্তব্য