নওগাঁয় একই দিনে বিসিএস ও প্রাথমিকের পরীক্ষা, বিপাকে পরীক্ষার্থীরা

নওগাঁয় একই দিনে বিসিএস ও প্রাথমিকের পরীক্ষা, বিপাকে পরীক্ষার্থীরা
বিসিএস পরীক্ষা   © সংগৃহীত

৪৩তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের মৌখিক পরীক্ষা কয়েকটি জেলায় একই দিনে পড়েছে। এতে শিক্ষার্থীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে টাঙ্গাইল, গাইবান্ধা ও নাটোর জেলায় প্রাথমিকের পরীক্ষা পেছানো হলেও নওগাঁ জেলায় পরীক্ষা পেছানো হচ্ছে না। এ নিয়ে বিপাকে পড়েছেন পরীক্ষার্থীরা।

আজ রোববার থেকে দেশের আট বিভাগীয় শহরে শুরু হয়েছে ৪৩তম বিসিএস লিখিত পরীক্ষা যা ৩১ জুলাই পর্যন্ত চলবে। এদিকে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের জন্য লিখিত পরীক্ষায় নির্বাচিত প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা গত ১২ জুন শুরু হয়েছে যা আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

আরও পড়ুন: শিগগিরই চালু হচ্ছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ১২টি কোর্স

কিছু প্রার্থীর প্রাথমিকের মৌখিক পরীক্ষার দিন বিসিএস লিখিত পরীক্ষা হবে। টাঙ্গাইল, গাইবান্ধা, নাটোর ও নওগাঁ জেলার কিছু প্রার্থী এ সমস্যায় পড়েছেন। এর মধ্যে টাঙ্গাইল, গাইবান্ধা ও নাটোর জেলার প্রার্থীরা তাঁদের সমস্যার কথা জানিয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করলে প্রাথমিকের মৌখিক পরীক্ষা কারও আগে নেওয়া, আবার কারও পরীক্ষা বিসিএস পরীক্ষার পর নেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়। কিন্তু নওগাঁ জেলার প্রার্থীরা জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করলেও তারিখ পরিবর্তন করা হয়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পরীক্ষার্থী বলেন, টাঙ্গাইল, গাইবান্ধা ও নাটোর জেলারও কিছু প্রার্থীর পরীক্ষা একই সময়ে ছিল। তাই সেখানকার জেলা প্রশাসক পরীক্ষা পিছিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু আমাদের পরীক্ষা পেছানো হচ্ছে না।

পরীক্ষা না পেছানোয় হতাশা প্রকাশ করে এক পরীক্ষার্থী বলেন, ‘আমরা তো কারও কাছে চাকরি চাচ্ছি না। চাকরির পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ চাচ্ছি। সেই সুযোগও মিলছে না।’

এ বিষয়ে নওগাঁর জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসান বলেন, ‘প্রার্থীদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে, তাঁরা কোন পরীক্ষা দেবেন। বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা দেবেন নাকি প্রাথমিকের মৌখিক পরীক্ষা দেবেন, তা প্রার্থীরাই পছন্দ করে দেবেন।’


x

সর্বশেষ সংবাদ