কলেজছাত্রকে ‘জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বিয়ে’ করা পাখির বিচ্ছেদ

পাখি ও নাজমুল
নাজমুল ও পাখি  © ফাইল ছবি

পটুয়াখালী সরকারি কলেজের ছাত্র নাজমুল আকন (২৩) ও সরকারি বাঙলা কলেজছাত্রী ইশরাত জাহান পাখির বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। সোমবার (১৪ মার্চ) পটুয়াখালী চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের আইনজীবী এনামুল হকে চেম্বারে উভয় পক্ষের আপোষ-মীমাংসার ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত হয়।

পাখির আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নাজমুল প্রথমে বিয়ের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। পরে আমার ক্লায়েন্ট বিয়ের বিষয়ে সম্পূর্ণ দলিল-প্রমাণ বিজ্ঞ আদালতের সামনে পেশ করেছেন। পরে নাজমুল বিয়ে স্বীকার করলেও সংসার করতে রাজি না হওয়ায় দুপক্ষের আলোচনার ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত হয়।

কলেজছাত্র নাজমুল আকন জেলার মির্জাপুর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের জালাল আকনের ছেলে। আর তরুণী ইশরাত জাহান পাখি একই উপজেলার গাজিপুর গ্রামের মো. আউয়াল মিয়ার মেয়ে।

আরও পড়ুন: কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলেন তরুণী

এর আগে, গত ৩ অক্টোবর নাজমুল আকনকে অপহরণ করে জোরপূর্বক বিয়ে করার অভিযোগ তুলে পাখির বিরুদ্ধে পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে অবশ্য জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বিয়ের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পাখি। এ ঘটনায় সেসময় দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি হয়।

সরকারি বাঙলা কলেজছাত্রী ইশরাত জাহান পাখি দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, নাজমুল আমাকে সর্বশান্ত করে দিয়েছে। সর্বশেষ এখন তার কারণে বিয়েটাও ভেঙে গেছে। আমার অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। সে আমার বিয়েকেও অস্বীকার করতে চেয়েছে। আমি আদালতে সব তথ্য-প্রমাণ তুলে ধরেছি। তবে এ মীমাংসার বিষয়ে কোনো ধরনের মন্তব্য করতে রাজি হননি নাজমুল আকন।

আরও পড়ুন: জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বিয়ের খবর সঠিক নয়: পাখি

বিচ্ছেদের বিষয়ে আদালতের মীমাংসাপত্রে বলা হয়েছে, বাদীপক্ষ ঘর-সংসার করার আগ্রহ প্রকাশ করলেও বিবাদী ঘর-সংসার করবে না মর্মে প্রকাশ করায় বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হয়। যাতে দেন মোহর বাবদ উভয়পক্ষের আপোষে বাদী পক্ষকে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা আসামিপক্ষ প্রদান করবে। তাদের মধ্যে খোলা তালাক হবে।

বাদী পক্ষ কর্তৃক দায়েরকৃত সকল মামলা থানায় অভিযোগ সাধারণ ডায়েরি নিজ দায়িত্বে আইনানুগ প্রক্রিয়ায় প্রত্যাহার করিয়া নেবে। আসামিপক্ষ কর্তৃক বাদীর বিরুদ্ধে করা মামলা আইনানুগ প্রক্রিয়ায় প্রত্যাহার করিয়া নিবে এবং ভবিষ্যতে উক্ত মোকদ্দমার বিষয়কে নিয়া কেউ কারো সাথে কোনরূপ ঝগড়া বিবাদ বা মামলা মোকদ্দমায় জড়াবে না।


x

সর্বশেষ সংবাদ