কৃষকের ৬ বিঘা ধান কেটে দিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা

কৃষকের ৬ বিঘা ধান কেটে দিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা
আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের ধান কাটার দৃশ্য  © টিডিসি ফটো

বৈশ্বিক মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রকোপ মোকাবিলায় দেশে সরকার ঘোষিত লকডাউন চলছে। গত বছর লকডাউনের সময়ের মতো এবারও আজ শুক্রবার মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর থানার আড়িয়াল বিলে দরিদ্র কৃষক আবুল বেপারীর ৬ বিঘা ফসলের মাঠে থাকা পাকা ধান কেটে মাড়াই করে ঘরে তুলে দিলেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

ধানকাটা কার্যক্রমে অংশ নেন কেন্দ্রীয় সভাপতি বাবু নির্মল রন্জন গুহ, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু, কেন্দ্রীয় সহসভাপতি কাজী শহীদুল্লাহ্ লিটন, কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন, বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ারুল আজিম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সালমা হাই টুনী, উপ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শ্যামল গোস্বামী, কেন্দ্রীয় সদস্য নজরুল ইসলাম, এ কে এম আজগর আলী, আবু জাফর, ফয়সাল আহমেদ, জাহাঙ্গীর হোসেন বাবর, মুন্সীগন্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আল মাহমুদ বাবু, সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম পিন্টু, শ্রীনগর থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি জহিরুল হক নিশাদ শিকদার প্রমুখ।

সভাপতি বাবু নির্মল রন্জন গুহ বলেন, আমরা করোনার প্রথম ঢেউয়েও প্রান্তিক ও অসহায় কৃষককে ধানকাটার কাজে সহযোগিতা করেছিলাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়েও অসহায় কৃষককে ধানকেটে ঘরে তোলার ক্ষেত্রে সার্বিক সহযোগিতা করব আমরা। যাতে এই করোনাকালীন পরিস্থিতিতে সারা বাংলাদেশের আমাদের সংগঠনের নেতাকর্মীরা এসব কার্যক্রমে অংশ নিয়ে অসহায় কৃষক ও সাধারণ মানুষের পাশে দাড়ায়।

সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু বলেন, আমরা করোনাকালীন সংকটে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে ৪৩ জন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা ফ্রি টেলি হেলথ সার্ভিস, এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, অক্সিজেন সিলিন্ডার সার্ভিস, মাস্ক এবং প্রয়োজনীয় ত্রাণ বিতরণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে না আসা পর্যন্ত এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।
পরে অসহায় ও দুস্থ কৃষকের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন নেতারা।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ