ছাত্রকে যৌন হয়রানি: ৪ মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার

 মাদরাসা
মাদরাসার শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ  © সংগৃহীত

গাজীপুরের গাছা থানার ডেগেরচালা এলাকায় পুলিশের কাজে বাধা দেওয়া ও এক শিশু ছাত্রকে যৌন হয়রানি এর অভিযোগে মাদরাসার ৪ শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার তথ্যটি নিশ্চিত করেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) সহকারী কমিশনার মো: আবু সায়েম নয়ন। 

আটককৃতরা হলেন-ডেগেরচালা এলাকার মঈনুল ইসলাম হামীয়ুস সুন্নাহ মাদরাসার শিক্ষক ও আব্দুর রহমান ওরফে শান্ত ইসলাম (২২), মাদরাসার অধ্যক্ষ মো: ইসমাইল (৪৪), ফকরুল ইসলাম (২৭) এবং হাবিবুর রহমান (৩২)।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) সহকারী পুলিশ কমিশনার আবু সায়েম নয়ন বলেন, গত বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে মাদরাসার আবাসিক শিক্ষক শান্ত ইসলাম বিস্কুট দেবার প্রলোভন দেখিয়ে এক শিশু ছাত্রকে যৌন হয়রানি করেন। ঘটনাটি ওই শিশু তার বাবাকে জানায়। শিশুটির বাবা মাদরাসার অধ্যক্ষসহ অন্য দুই শিক্ষকের কাছেও ওই বিষয়ে অভিযোগ দেন। মাদরাসার অধ্যক্ষ ও শিক্ষকরা বিষয়টি সমাধান করবেন বলে শিশুটির বাবাকে আশ্বাস দেন। তবে তারা কৌশলে কালক্ষেপণ করেন, যাতে যৌন হয়রানির আলামত নষ্ট হয়ে যায়। 

আরও পড়ুন: শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যা ঠেকাতে দুই লাখ শিক্ষক প্রশিক্ষণ পাবেন

তিনি আরও বলেন, গত ১২ সেপ্টেম্বর শিশুটির বাবা আবারও শিক্ষকদের কাছে গেলে তারা জানান পরীক্ষা শেষ হলে তারা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। শিশুটির বাবা কোনো প্রতিকার না পেয়ে ঘটনাটি পুলিশকে জানান। পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষককে সোমবার বিকেলে আটক করতে গেলে ওই মাদরাসার অধ্যক্ষসহ অন্য দুই শিক্ষক পুলিশের কাজে অসহযোগিতা ও বাধা দেন। পরে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার গাছা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। পরবর্তীতে অভিযুক্ত শিক্ষক এবং মাদরাসার অধ্যক্ষসহ আরও দুই শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বুধবার রিমান্ডের আবেদন করা হয়।

জিএমপি’র গাছা থানার ওসি মো: ইব্রাহিম হোসেন বলেন, ভিকটিমের বাবা কোন প্রতিকার না পেয়ে ঘটনাটি গাছা থানা পুলিশকে অবহিত করেন।


x

সর্বশেষ সংবাদ