‘আগামী সপ্তাহে এইচএসসির রুটিন’— এমন কথা বলেননি শিক্ষামন্ত্রী

এইচএসসি পরীক্ষার তারিখ
শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি

‘আগামী সপ্তাহে এইচএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ হবে’— এমন খবরে বিভ্রান্তিতে পড়েছেন পরীক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, এ ধরনের বক্তব্য শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি দেননি। বরং এ আগামী সোম-মঙ্গলবারের মধ্যে নতুন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

বুধবার শিক্ষাবিট সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে দেয়া শিক্ষামন্ত্রীর ভিডিও বক্তব্য যাচাই করে শিক্ষার্থীদের দাবির সত্যতা মিলেছে। তবে আলাদাভাবে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেছেন কিনা— সে ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ওই বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, অনেকেই নিয়মিতভাবে পড়াশোনা করতে পারছেন না। এটা খুব স্বাবাভিক। ৬ মাস ধরে পরীক্ষা কবে হবে কবে হবে, এই প্রস্তুতি ও ধৈর্য্য ধরে রাখা যায় না। কাজেই আমি বারবার বলেছি, অন্তত দু’সপ্তাহ সময় দিব। আমার মনে হয় যে পরীক্ষা শুরু করার আগে আমরা অন্তত ৪ সপ্তাহ সময় দিব। আমরা চেষ্টা করব দ্রুততম সময়ের মধ্যে মিনিমাম কতগুলো সাবজেক্ট নিয়ে এবং মিনিমান কত নম্বরের পরীক্ষা নিয়ে আমরা এই পরীক্ষাটি সম্পন্ন করতে পারি। সেক্ষেত্রে হয়তো কিছু কিছু বিষয়ের ক্ষেত্রে আমরা জেএসসি-এসএসসির নম্বরও মূল্যায়নের মধ্যে নিয়ে আসতে পারি।

তিনি বলেন, আমরা অনেকগুলো অপশন ঠিক করেছি। আমরা আপনাদের কাছে যে অপশনটি সিদ্ধান্ত হয়ে যাবে; তা জানাব। আগামী সোম-মঙ্গলবারের মধ্যে আশা করি জানাব।

একাধিক অপশনের ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, আজকে আমি সিদ্ধান্ত নিলাম অমুক তারিখ থেকে পরীক্ষা নেব, তারপর যদি পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষা নেওয়া না যায়; সেই অপশনটিতো আপনাদের আগেভাগে জানিয়ে রাখতে হবে। কিংবা আমি পরীক্ষা নিতে যাচ্ছি সে সময়ে যে পরীক্ষার্থীটি কোভিডে বা তার বাড়িতে কেউ কোভিডে আক্রান্ত কেউ আছে; সেই পরীক্ষার্থীর কি হবে? আমরা চাই না সে পরীক্ষা কেন্দ্রে আসুক। তাহলে তার জন্যও তো একটি বিকল্প ব্যবস্থা করে রাখতে হবে। এসবগুলো নিয়ে সমস্ত প্রস্তাবনা নিয়ে আগামী সোম-মঙ্গলবারের মধ্যে সবাই মিলে গণমাধ্যমের সামনে আসব।

অটো-প্রমোশনের বিষয়ে ডা. দীপু মনি বলেন, অনেকেই পরীক্ষা ছাড়াই মূল্যায়ন চায়। এটা নিয়ে আমাদের কাছে অনেক ই-মেইলও এসেছে। তারা আগের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে অটো পাস চেয়েছেন। এটা একটা অপশন। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য তাদেরকে কিছুদিন পর পরীক্ষার হলে যেতেই হবে। তাই এটাকে আমরা নাকচ করে দিচ্ছি। তাছাড়া ভবিষ্যতে শিক্ষার্থীদের এমন কথাও শুনতে হবে ‘ওহ! তোমরা তো ২০২০ ব্যাচ। তুমি তো পরীক্ষা দিয়ে পাস করোনি। তাই তোমার ফলাফলকে গুরুত্ব দিচ্ছি না।’


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ