ফ্রি ফায়ারে আসক্তি থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন স্কুলছাত্র

ঢাকা
স্কুলছাত্র তামিম   © সংগৃহীত

যশোরে মোবাইল গেম ফ্রি ফায়ারে আসক্ত হয়ে তামিম হোসেন (১৭) নামে এক স্কুলছাত্র মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন হয়ে উঠেছেন। গত এক সপ্তাহ যাবত চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। তবে বর্তমানে বাড়িতে চিকিৎসাধীন রয়েছে তিনি। তামিম ঝিকরগাছার সৈয়দপাড়া গ্রামের সাবুর আলীর ছেলে।

তামিমের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, স্কুলছাত্র তামিম দীর্ঘদিন যাবত ফ্রি ফায়ার খেলত। তামিম সর্বদা খেলা নিয়েই ব্যস্ত থাকত। পরিবারের বিধিনিষেধ মানত না। বেশ কিছুদিন যাবত অস্বাভাবিক আচরণ করতে শুরু করে তামিম। পরে তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। 

তামিম হোসেনের ভাগনে আল আমিন জানান, করোনার প্রকোপ শুরুর আগে টাওরা আজিজুর রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণিতে পড়ত তামিম। করোনাকালীন স্কুল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় তামিম মোবাইলে ফ্রি ফায়ার গেমে আসক্ত হয়ে যায়। পরে স্কুল খুললেও আর স্কুলে যায়নি তামিম। মোবাইল গেমে আসক্ত হয়ে এখন তামিম মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন।

আল আমিন আরও জানান, ঈদুল ফিতরের পরদিন থেকেই তামিম একেবারে ভারসাম্যহীন হয়ে যায়। পরে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের নিকটে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে চিকিৎসকের পরামর্শে বাড়িতেই রয়েছে তামিম, অধিকাংশ সময় ঘুমাচ্ছেন তিনি। তবে ঘুম থেকে জেগে উঠলেই ফ্রি ফায়ার গেম সম্পর্কিত নানান ধরনের কথা-বার্তা বলছেন তিনি। 

যশোর মেডিকেল কলেজের মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডাক্তার আমিনুল ইসলাম জানান, মোবাইল গেমে আসক্ত হয়ে ওই স্কুলছাত্র ভারসাম্যহীন হয়ে পরছে। চিকিৎসায় ভালো হবেন তিনি। এক্ষেত্রে অধিক ঘুমও স্বাভাবিক রাখতে হবে।  

তামিমের বাবা সাবুর আলী জানান, তামিম গেমে আসক্ত হয়ে মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে, এটা আমার জন্য খুবই খারাপ খবর। কেউ যেন তাদের বাচ্চাদের মোবাইলে ফ্রি ফায়ার গেম খেলতে না দেয়। 


x

সর্বশেষ সংবাদ