টাকা চুরির অপবাদে কিশোরকে শিকলে বেঁধে নির্যাতন

ভাইরাল
ভাইরাল হওয়া ছবি  © সংগৃহীত

পটুয়াখালীর গলাচিপায় টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে মুন্না (১৬) নামের এক কিশোরকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। 

ঘটনাটি উপজেলার সদর ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামে ঘটেছে। নির্যাতনের পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে ওই কিশোর। মুন্না নামের ওই কিশোর সদর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের শাহাজাহান কমান্ডারের ছেলে। 

জানা যায়, ৮৫ হাজার টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে বোয়ালিয়া এলাকার হজরত আলী নামে এক ব্যক্তি  গত ৯ মে থেকে ১১ মে পর্যন্ত ওই কিশোরকে বেধরক মারধর করেন। এই ঘটনার ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, কিশোর মুন্নাকে একটি গাছের সঙ্গে লোহার শিকলে বেঁধে রাখা হয়েছে।  এসময় আশপাশের লোকজন দাঁড়িয়ে বিষয়টি দেখছেন। কেউ কেউ ছবি তুলছেন। তবে কেউ এ ঘটনার প্রতিবাদ করে এগিয়ে আসেনি। ছবিতে মুন্নার শরীরে রক্তাত জখম হতেও দেখা গেছে।

আরও পড়ুন: ‘মানুষ খেতে পারে না, অথচ জেলায় জেলায় এলইডি স্থাপন হয়’

মুন্নার পরিবারের অভিযোগ গত ৯ মে থেকে ১১ মে মধ্যরাত পর্যন্ত দফায় দফায় মুন্নার উপর এ অমনাবিক নির্যাতন চালানো হয়। 

মুন্নার মা হাসিনা বেগম বলেন, তারা ঢাকায় থাকেন, মুন্না বাড়িতে থাকতো। খবর পেয়ে তারা বাড়িতে এসেছেন। তার ছেলেকে টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। তাকে দফায় দফায় তিনদিন যাবৎ হজরত আলী, ফেরদৌস, মমতাজ এবং তানিয়া অমানবিক নির্যাতন করে। এরপর থেকে ছেলেকে খুঁজে পাচ্ছি না। 

এ বিষয়ে গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ এম আর সওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, ঘটনার পর ওই কিশোর কৌশলে মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে।


x