নটরডেমের ছাত্র নিহতের জের

শিক্ষকরা এসে নিয়ে গেলেন সড়ক অবরোধ করা শিক্ষার্থীদের

আন্দোলন
শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ  © সংগৃহীত

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নটরডেম কলেজের নাঈম হাসানের মৃত্যুর ঘটনার গুলিস্তানে সড়ক অবরোধে থাকা শিক্ষার্থীদের শিক্ষকরা এসে নিয়ে গেছেন।

আজ বুধবার বিকাল ৫টার দিকে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা সড়ক থেকে সরে যেতে শুরু করলে গুলিস্তানে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা পর আবার যানবাহন চলাচল শুরু হয়।

শিক্ষকদের কথায় অবরোধ তুলে নেওয়ার আগে তারা নিহত সহপাঠী নাঈম হাসানের পরিবারের ভরণপোষণের দাবি জানান।

এর আগে দুপুরে পৌনে ১২টার দিকে গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ হারান নাঈম হাসান। পরে তার মৃত্যুর খবর কলেজে পৌঁছলে শতাধিক শিক্ষার্থী গুলিস্তান এসে সড়ক অবরোধ করে।

শিক্ষার্থীরা দায়ী চালকের শাস্তির দাবি তোলেন। তারা স্লোগান দিচ্ছিলেন- ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’, ‘আমার ভাই কবরে-তুই কেন বাইরে’।

বিকাল ৫টার দিকে শিক্ষার্থীরা সড়ক ছাড়ার আগে নাঈমের পরিবারের ভরণপোষণের দায়িত্ব চান সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষের কাছে।

এর আগে নটরডেম কলেজের ফাদার এন্থনি সুশান্ত গোমেজ, পদার্থ বিজ্ঞানের শিক্ষক ভিনসেন্ট তিতাস রোজারিও ও শহিদুল হাসান পাঠান ঘটনাস্থলে এসে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তারা আশ্বস্ত করে শিক্ষার্থীদের নিয়ে যান।

সড়ক থেকে চলে যাওয়ার আগে মুকিত নামে আন্দোলনকারী এক শিক্ষার্থী  বলেন, ফাদার আমাদের জানিয়েছেন, মেয়র আশ্বাস দিয়েছেন। তাই আজকের মত সড়ক ছেড়ে চলে গেলাম।

ঢাকা মহানগর মতিঝিল জোনের পুলিশ পরিদর্শক (ট্রাফিক) মশিউর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীরা চলে যাওয়ার পর সড়ক দিয়ে যান চলাচল শুরু হয়েছে।


মন্তব্য

x