চবির ভর্তি আবেদনে জটিলতা, শিগগিরই সমাধানের আশ্বাস

চবির ভর্তি আবেদনে জটিলতা, শিগগিরই সমাধানের আশ্বাস
  © ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথমবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন প্রক্রিয়ায় জটিলতা দেখা দিয়েছে। সার্ভারে ত্রুটি থাকায় অনেক ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারছেন না। আবেদন প্রক্রিয়ায় সমস্যার বিষয়ে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ আসার পর খুব শিগগিরই তা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের পরিচালক মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম।

আজ বুধবার রাতে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, নতুন সফটওয়্যারে ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের একটু সমস্যা হচ্ছে। অনেকেই ফি জমা দিয়ে বার্তা পাচ্ছেন না। অনেকে ঢুকতে পারছেন না। বিষয়টি তাঁরা জেনেছেন। এটি নিয়ে আইসিটি দল কাজ করছে। দু-এক দিনের মধ্যে বিষয়টির সমাধান হয়ে যাবে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এত বছর টেলিটক কোম্পানি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সফটওয়্যার দিয়ে ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা করত। পরে ২০১৮ সালে ‘আগামী ল্যাবস’ নামের একটি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়। ওই কোম্পানির তৈরি সফটওয়্যার দিয়ে ২০১৮ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত যাবতীয় ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। তবে এ বছর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নিজস্ব মালিকানার সফটওয়্যার ব্যবহার করছে।

খায়রুল ইসলাম বলেন, আগামী ল্যাবসের সঙ্গে চুক্তি আর নবায়ন করা হয়নি। তাদের তৈরি সফটওয়্যারের মালিকানা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছিল না। বিশ্ববিদ্যালয়ের শুধু ইউজার রাইটস ছিল। ফলে সফটওয়্যারে কোনো বিষয় সংযোজন কিংবা বিয়োজন করতে গেলে ওই কোম্পানিতে যেতে হতো। এ কারণে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একেবারে নিজেদের মালিকানায় ও মেধাস্বত্বের সুযোগ রেখে সফটওয়্যার তৈরি করেছে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাত থেকে শিক্ষার্থীরা ভর্তি আবেদনে সমস্যার কথা জানিয়েছেন। আশিক নামে এক ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থী যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও ‘এ’ ইউনিটে আবেদন করতে পারছেন না।

তিনি বলেন, এসএসসি ও এইচএসসি মিলিয়ে তাঁর জিপিএ সাড়ে ৯-এর বেশি। কিন্তু ‘এ’ ইউনিটে আবেদন করতে লাগবে সব মিলিয়ে ৮। বারবার চেষ্টা করেও সার্ভারে ঢুকতে পারছেন না। তিনি ‘প্রথমে “এ” ইউনিটে আবেদন করতে পারেননি, আর আজকে থেকৈ কোনো ইউনিটেই আবেদন করতে পারছেন না।


মন্তব্য