হাতে লেখা প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে, প্রশ্নফাঁসেরও অভিযোগ

প্রশ্নফাঁস
কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়  © সংগৃহীত

ভারতের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে হাতে লেখা প্রশ্নপত্রে! এমনটাই ঘটেছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ়নেস ম্যানেজমেন্ট বিভাগের একটি পরীক্ষায়।

গত রবিবার (১২ জুন) ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের আলিপুর ক্যাম্পাসে ছিল বিজ়নেস ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পিএইচডি করার যোগ্যতা নির্ণায়ক পরীক্ষা (রেট)। অভিযোগ, সেই পরীক্ষায় যে প্রশ্নপত্র পরীক্ষার্থীদের দেওয়া হয়েছে, তা হাতে লেখা। 

২০২২ সালে এসে দেশের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশ্নপত্র হাতে লেখা হওয়ায় স্বভাবতই শিক্ষামহল বিস্মিত। বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক অধ্যাপক সোমবার (১৩ জুন) জানালেন, হাতে লেখা প্রশ্নপত্রে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা হচ্ছে, এমন তারা আগে দেখেননি,শোনেনওনি। 

বিষয়টি নিয়ে সোমবার ওই বিভাগের প্রধান শুভাশিস সাহাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘কোয়েশ্চেন সেটার যেমন প্রশ্নপত্র তৈরি করে দিয়েছেন, পরীক্ষার্থীদের সেই প্রশ্নপত্রই দেওয়া হয়েছে। আমরা তাতেই পরীক্ষা নিয়েছি।

এই পরীক্ষা দিয়েছেন রনি ঘোষ নামে এক পড়ুয়া। তিনি আবার দাবি করেছেন, প্রশ্নপত্রটি আগে থেকেই হাতে পেয়েছেন বলে দাবি করেছিলেন ওই পরীক্ষার অন্য দুই পরীক্ষার্থী। রনির দাবি, এ বিষয়ে তিনি উপাচার্যকে ই-মেইল করে আগেই জানিয়েছিলেন। এ দিনহাতে লেখা প্রশ্নপত্র এবং সেই প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার অভিযোগ— এই দুই বিষয়ে তদন্তের দাবি করেছে ছাত্র সংগঠন ডিএসও। 

ওই সংগঠনের কলকাতা জেলা কমিটির সম্পাদক আবু সাঈদ এ দিন বলেন, একটি পরীক্ষা নিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের যতটা দায়িত্বশীল হওয়া উচিত ছিল, আমরা মনে করি, কর্তৃপক্ষ তা হননি। বরং সম্পূর্ণভাবে উদাসীন থেকেছেন।

বিষয়টি নিয়ে সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) আশিস চট্টোপাধ্যায় বলেন, ওই পরীক্ষার দায়িত্ব সম্পূর্ণভাবে সংশ্লিষ্ট বিভাগের উপরে থাকে। এটাতো আমরা দেখি না।

প্রশ্নপত্র ফাঁস প্রসঙ্গে সহ-উপাচার্য বলেন, এগুলোর তো কোনও প্রমাণ নেই। পুরোটাই গুজব।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা


x