কৌতুক অভিনেতা রাজু শ্রীবাস্তব মারা গেছেন

রাজু শ্রীবাস্তব
শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন জনপ্রিয় কৌতুকশিল্পী রাজু শ্রীবাস্তব  © সংবাদ প্রতিদিন

হাসির জাদুকর স্টেজে এসে দাঁড়ালেই দর্শকদের মুখে হাসি ফুটত। কিন্তু অনুরাগীদের কাঁদিয়ে চলে গেলেন রাজু শ্রীবাস্তব। ৫৮ বছর বয়সে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন জনপ্রিয় এই কৌতুকশিল্পী। গত আগস্টে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। দীর্ঘদিন ভেন্টিলেশনে ছিলেন।

সংবাদ প্রতিদিন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ১৯৬৩ সালের ২৫ ডিসেম্বর ভারতের কানপুরে জন্ম হয় রাজু শ্রীবাস্তবের। বাবা রমেশচন্দ্র শ্রীবাস্তব ছিলেন কবি। ছেলের নাম রেখেছিলেন সত্যপ্রকাশ শ্রীবাস্তব। রাজু নামেই সবাই ডাকতো। চেনা মানুষজনের নকল করতে পারতেন। কাউকে হাসিয়ে দিতে পারতেন। তাঁর কৌতুক শিল্পের বেশ কদর ছিল কানপুুরে। অনেকেই ডেকে নিতেন। কানপুুরে বেশ জনপ্রিয় হলেও তাঁর লক্ষ্য ছিল বলিউড। 

রাজু বলিউডের টানেই মুম্বইয়ে পাড়ি দেন। আশির দশকের শুরুতে পৌঁছেই সিনেমায় সুযোগ পাননি। ১৯৮৮ সালে ‘তেজাব’ সিনেমায় ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। ‘ম্যায়নে প্যায়ার কিয়া’ সিনেমাতেও ছিলেন। এরপর সিনেমায় পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেন রাজু। তবে কেরামতি ছিল স্টেজে। ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান লাফটার চ্যালেঞ্জ’ শোয়ের রানার-আপ ছিলেন রাজু।

আরো পড়ুন: ‘RRR’ ও ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’কে হারিয়ে অস্কারের দৌড়ে ‘ছেল্লো শো’

তাঁর হাস্যরসের খ্যাতি দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছিল। দ্য কিং অফ কমেডির খেতাব পেয়েছিলেন। তাঁর ‘গজোদর ভাইয়া’ চরিত্র বেশ জনপ্রিয়।রাজনীতিতেও যোগ দিয়েছিলেন রাজু। প্রথমে সমাজবাদী পার্টি টিকিট দিয়েছিল। কিন্তু তা ফেরত দেন। স্থানীয় নেতারা সাহায্য করছেন না বলে অভিযোগ ছিল তার। পরে বিজেপিতে যোগ দেন।

রাজনৈতিক দলের বিশিষ্ট নেতাদের সঙ্গে দেখা করতে দিল্লিতে গিয়েছিলেন রাজু। ঘুম থেকে উঠে হোটেলের জিমে যান। সেখানে হঠাৎই বুকে ব্যথা শুরু হয়। লুটিয়ে পড়েন রাজু শ্রীবাস্তব। সঙ্গে সঙ্গে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, জিমেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন রাজু। হাসপাতালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।


x

সর্বশেষ সংবাদ