৫৮ বছর বয়সে স্নাতক পাস করলেন প্রাথমিক শিক্ষিকা

স্নাতক
শামসুন্নাহার বেগম  © সংগৃহীত

৫৮ বছর বয়সে ডিগ্রি পাস করে তাক লাগিয়ে দিয়েছন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকা। গত ২৫ এপ্রিল প্রকাশিত ডিগ্রির ফলাফলে পাস করেন ওই শিক্ষিকা। এতে পরিবার থেকে শুরু করে এলাকাবাসীর প্রসংশায় ভাসছেন তিনি।

ওই শিক্ষিকার নাম শামসুন্নাহার বেগম। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের ফানুর গ্রামে তার বাড়ি। শামসুন্নাহারের বাবা আফাজ উদ্দিন একজন শিক্ষক। স্বামী সেনাবাহিনীতে চাকরি করেন। ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার চট্টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক তিনি।

জানা গেছে, ১৯৬৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন শামসুন্নাহার। ১৯৮০ সালে এসএসসি পাস করেন। এরপর পিটিআই প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৮৪ সালে তার বিয়ে হয়। পড়ালেখার প্রতি আগ্রহ থেকেই ১৯৯৩ সালে কলেজে ভর্তি হন। ১৯৯৫ সালে তার এইচএসসি পরীক্ষা দেওয়ার কথা থাকলেও তার প্রথম সন্তান হওয়ার কারণে সেবার পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেননি।

১৯৯৫ সালেই তিনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকতার সুযোগ পান। সংসার আর শিক্ষকতার চাপে তার পড়ালেখার স্বপ্নটা পূরণ করা হয়নি। তবে দমে যাননি শামসুন্নাহার। সকল ব্যস্ততার মধ্যেও ২০১৩ সালে এইচএসসি পাস করার উদ্দেশ্যে  উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। ২০১৫ সালে এইচএসসি পাস করেন তিনি। এরপর ২০১৬-১৭ সেশনে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএড কোর্সে ভর্তি হন তিনি। গত জানুয়ারি মাসে ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হন শামসুন্নাহার।

নিজের এই অর্জন সম্পর্কে শামসুন্নাহার বলেন, ইচ্ছা ছিল গ্রাজুয়েট হব। তবে সংসার আর চাকরির ব্যস্ততার কারণে স্বপ্ন পূরণ হচ্ছিল। অবশেষে আমার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। বাবা বেঁচে থাকলে তিনি আরও খুশি হতেন।


x

সর্বশেষ সংবাদ