দীর্ঘদিনের অসুস্থতায় নিঃস্ব পরিবার, মানবিক সাহায্যের আবেদন

সাহায্য
সৌদি প্রবাসী মোরশেদ আলম  © টিডিসি ফটো

চার বছর ধরে কিডনী জটিলতায় ভুগছেন সৌদি প্রবাসী মোরশেদ আলম। ডায়ালাইসিস ও আনুসাঙ্গিক খরচ বাবদ প্রতি মাসে খরচ হয় প্রায় ৪০ হাজার টাকারও বেশি। সব জায়গা সম্পত্তি বিক্রি করে এখন নিঃস্ব হওয়ার পথে মোরশেদ ও তার পরিবার। চিকিৎসা চালিয়ে নিতে সামর্থবান ব্যাক্তিবর্গের নিকট মানবিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন তিনি। 

জানা যায়, মোরশেদ আলমের বাড়ি নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী উপজেলার শিলমুদ গ্রামে। তাদের বাড়ির নাম কলাগাজী বেপারী বাড়ি। চার ভাইয়ের মধ্যে সবার বড় তিনি। পরিবার বলতে তিনি এবং তার স্ত্রী। ১৪ বছর ধরে সৌদি আরবে কর্মরত ছিলেন তিনি। কিডনী রোগ ধরা পড়ায় দেশে চলে আসতে হয়। গত চার বছর ধরে চিকিৎসা করাতে গিয়ে ভিটেমাটি ছাড়া প্রায় সব জায়গা-সম্পত্তি বিক্রি করে দিয়েছেন। প্রতি মাসে অন্তত আট থেকে ১০ বার ডায়ালাইসিস করাতে হয়। প্রতি ডায়ালাইসিসে খরচ হয় ৩ হাজার টাকা। ঔষধসহ প্রতি মাসে খরচ হয়ে যায় ৪০ হাজার টাকারও বেশি। 

প্রথমদিকে নিজের খরচেই চিকিৎসা চালাতেন মোরশেদ আলম। এক পর্যায়ে চিকিৎসার পিছনে নিজের সব জায়গা-সম্পত্তি বিক্রি করে দেন। এখন শুধু মাত্র ভিটেমাটি বাকী রয়েছে। কিছুদিন ধরে এলাকার মানুষের টাকায় তাঁর চিকিৎসা চলছে। এমতাবস্থায় চিকিৎসা চালাতে গিয়ে সামর্থবান মানুষের শরণাপন্ন হতে হচ্ছে মোরশেদ আলমের। তাই তিনি সমাজের বিত্তবানদের সহযোগীতা চেয়েছেন। 

মোরশেদ আলম বলেন, আমার জায়গা-সম্পত্তি যা ছিলো সব শেষ। এখন শুধু থাকার জায়গাটাই আছে। প্রতি মাসে প্রায় ৪০ হাজার টাকার বেশি খরচ হচ্ছে। এই খরচ চালানোর মতো অবস্থা আমার এখন আর নাই৷ 

মোরশেদ আলমের জন্য সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা
বিকাশ- ০১৮৮৮২৮৬৩০৮, নগদ- ০১৮৮১৯৯৪৪৮০


x

সর্বশেষ সংবাদ