চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কোটি টাকা আত্মসাৎ, আটক ৩

অপরাধ
আটকৃত ব্যক্তিরা  © সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জে সিদ্ধিরগঞ্জ ও ফতুল্লায় পৃথক দুই অভিযানে চাকরির লোভ দেখিয়ে প্রতারণার অভিযোগে দুটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান ও এমডিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১১।

আজ বুধবার (১৩ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টায় সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজিতে র‍্যাব-১১ এর সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক লে. কর্নেল তানভীর পাশা এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটকৃত ব্যক্তিরা হলেন- রফিকুল ইসলাম (৩১), মো. সাইফুল ইসলাম (২৮) ও মো. রায়হান।

ওই সংবাদ সম্মেলনে লে. কর্নেল তানভীর পাশা বলেন, উপজেলার সাহেবপাড়া এলাকায় এন.আর.এস ফোর্স সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড এর অফিসে অভিযান পরিচালনা করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে প্রতিষ্ঠানটি অনলাইনে লোভনীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে চাকরি প্রদানের নামে সহজ সরল মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ও এমডি মো. সাইফুল ইসলামকে অফিস থেকে আটক করা হয়।

এ সময় তাদের কাছ থেকে কাজে ব্যবহৃত ৭০টি ভিজিটিং কার্ড, চাকরি প্রত্যাশীদের ২০টি ভর্তি ফরম, একটি সীল, অফিস শর্তাবলীর ২০টি অঙ্গীকারনামা, তিন জোড়া সিকিউরিটি ইউনিফর্ম ও দুটি আয়-ব্যায়ের রেজিষ্টার জব্দ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, একইদিন ফতুল্লা থানাধীন চাষাড়া তোলারাম কলেজ রোডের পাশে অবস্থিত এম.আর.এম ফোর্সেস সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড এর অফিসে অভিযান পরিচালনা করে র‍্যাব। এসময় প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান মো. রায়হানকে আটক করা হয়। এই প্রতিষ্ঠানটিও লোভনীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে চাকরি প্রদানের নামে প্রতারণা করে আসছিল।

প্রাথমিক অনুসন্ধান থেকে জানা গেছে, প্রতারণামূলক প্রতিষ্ঠান দুটি দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আকর্ষণীয় বেতনের বিজ্ঞাপন দিয়ে চাকরি প্রত্যাশীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। বিভিন্ন বেনামী কোম্পানীতে বিভিন্ন পদে লোক নিয়োগের প্রলোভন দেখিয়ে প্রত্যেক চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে রেজিস্ট্রেশন ফি, মেডিকেল ফি ইত্যাদির কথা বলে জনপ্রতি প্রায় ৭ থেকে ১৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নিত।

তাদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ ও ফতুল্লা থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান র‍্যাব-১১ এর সিইও তানভীর পাশা।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ