ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জের, চলন্ত বাস থেকে ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধাক্কা

ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জের, চলন্ত বাস থেকে ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধাক্কা
  © টিডিসি ফটো

রাজধানীর রামপুরা এলাকা থেকে বিকাশ পরিবহণের একটি বাসে উঠেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থী সুমন আহমেদ। ধানমন্ডি আসার পথে যাত্রীদের সাথে বাস ড্রাইভার ও হেলপারের বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে ওরিয়ন হাসপাতালের সামনে সুমনকে বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় বাসের হেলপার।

এসময় তার হাতের কনুই, হাটু ও মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়। তাছাড়া চোখেও একটু জখম হয়। পরে তাকে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার পর যাত্রীরা বাস ড্রাইভার ও হেলপারকে মারধর করে কলাবাগান থানায় নিয়ে যায়।

সুমন ফিন্যান্স বিভাগের ১৯তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। সোমবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে তিনি চাকরির সাক্ষাৎকার দিতে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।

সুমনের বন্ধু সাদ্দাম হোসেন জানান, বিকাশ পরিবহনের একটি বাস থেকে সুমনকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়। এসময় কাঁধে যে ব্যাগ ছিলো সেটি ধরে শত গজের মতো ছেচড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। ফলে তিনি গুরুত্বরভাবে জখম হন।

তিনি আরও বলেন, ওই বাসে যাত্রীদের সাথে হেলপারের বাকবিতণ্ডার হলে এসময় তাকে (সুমন) টার্গেট করে রাখা হয়। পরে সুমন টিকেট চাইলে তাকে টিকেট না দিয়ে আজিমপুর নিয়ে আসতে চেয়েছিলো। তিনি ঘটনা বুঝতে পেরে বাস থেকে নেমে যাওয়ার চেষ্টা করলে চলন্ত বাস থেকে তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয়।

কলাবাগান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ রুম্মন খান বলেন, এ ঘটনায় ওই সুমন নামের শিক্ষার্থী মাথা ও হাটুতে ব্যাথা পেয়েছেন আর তার পরনের শার্টটি ছিড়ে যায়। এ ঘটনায় স্থানীয় জনগণ বাসের ড্রাইভার ও হেল্পারকে মারধর করে। পরে তাদের মধ্যে সমাঝোতা হয়ে যায়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ