কেমন হওয়া উচিত কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রস্তুতি

গুচ্ছপদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা
  © টিডিসি ফটো

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ভাল করার জন্য সাজানো গোছানো ও বেসিক সমৃদ্ধ পড়াশোনার বিকল্প নেই। তবে এই মুহূর্তে এর চেয়েও এখন বেশি গুরুত্বপূর্ণ হল শত হতাশাকে ছুড়ে ফেলে নিজের চেষ্টাকে ধরে রাখা। এটাও বলে নেই চান্স পাওয়ার জন্য তোমাদের হাতে যথেষ্ট সময় আছে। “আমি চান্স পাবই ইনশাআল্লাহ” শত হতাশার ভিড়ে এই একটা দৃঢ় সংকল্প তোমাকে নিয়ে যেতে পারে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ শ্যামল ক্যাম্পাসে। চান্স পাওয়ার জন্য মনের স্বদিচ্ছা আর কঠোর পরিশ্রমই পারে সফলতার দ্বার প্রান্তে নিয়ে যেতে। ঘুরে দাড়াও সাফল্য আসবেই ইনশাআল্লাহ। মনে রাখবে Victory comesafter many times of failure.

পরীক্ষায় ভাল করতে হলে যা যা করতে হবে

যেকোনো ভর্তি পরীক্ষায় ভাল করার অন্যতম একটি শর্ত হচ্ছে বিগত সালের প্রশ্নগুলো খুব ভালো করে পড়ে ফেলা। যারা এখনো বিগত সালের প্রশ্নগুলো পড়নি তারা কমপক্ষে ৫ বছরের সকল কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত বছরের প্রশ্ন পড়ে ফেলো। কারণ প্রশ্ন + টাইপ মিলিয়ে ৪০% বা তারও বেশী রিপিট হয়। আর বিগত সালের প্রশ্ন পড়লে তুমি নিজেই বুঝতে পারবে কোন কোন টপিকস থেকে বেশী প্রশ্ন আসে, প্রশ্নের প্যাটার্ন কেমন হয় এবং কোনগুলো গুরুত্বপূর্ণ। মনে রাখবে গুরুত্বপূর্ণ টপিকসগুলো সবার জন্যই গুরুত্বপূর্ণ এবং ঘুরেফিরে সেগুলো থেকেই বারবার প্রশ্ন আসে।

জীববিজ্ঞান

যেহেতু এবার বোটানি এবং জুওলজিতে ৩০ মার্কস তাই সবার উচিত হবে জীববিজ্ঞানটা খুব ভালো করে পড়ে ফেলা। যারা মেডিকেলের প্রস্তুতি নিয়েছিলে তাদের জন্য অনেকটা সহজ হয়ে গেছে। যা পড়েছো সেগুলোই ভাল করে বারবার পড়ো। এই মুহূর্তে নতুন ও বাড়তি ইনফরমেশন গুলো পড়তে থাকো।

শুধুমাত্র জীববিজ্ঞান দিয়েই চান্স পাওয়ার প্রায় ৫০% মার্কস উঠানো সম্ভব। কোন টপিকসগুলো বেশী গুরুত্ব দিয়ে পড়বে তা বিগত সালের সকল কৃষির প্রশ্ন পড়লে ধারণা হয়ে যাবে। ঠিকমতো পড়াশোনা করলে জীববিজ্ঞানে ২৮ পর্যন্ত পাওয়া সম্ভব। তাই ভাল করার জন্য অবশ্যই জীববিজ্ঞানকে তোমার মেইন টার্গেট রাখতে হবে।

রসায়ন

কৃষির ভর্তি পরীক্ষায় রসায়নে থিওরি টাইপ প্রশ্ন বেশী আসে, ম্যাথ টাইপ খুবই কম আসে। তাই সকল কৃষিতে বিগত সালে যে টপিকগুলো থেকে প্রশ্ন এসেছে সেসব টপিকসগুলো হাজারী নাগ স্যার অথবা রবিউল স্যারের বই থেকে খুব ভাল করে পড়ে ফেলো। কৃষিতে জৈব যৌগ থেকে বেশি প্রশ্ন আসেনা, ২-৩ টা সর্বোচ্চ। প্রথমপত্রের ২য়, ৩য়, ৪র্থ এবং ৫ম এবং দ্বিতীয় পত্রের ১ম, ৩য়, ৪র্থ অধ্যায় থেকে বেশি প্রশ্ন আসে। বিগত সালের প্রশ্ন, টপিকসগুলো এবং হাজারী নাগ স্যারের বইয়ের অধ্যায় শেষের বহুনির্বাচনিগুলো ভাল করে পড়লে খুব সহজেই ২০-এ ১৮ উঠাতে পারবে।

পদার্থবিজ্ঞান

যারা মেডিকেলের প্রস্তুতি নিয়েছিলে তাদের অনেকেই পদার্থবিজ্ঞানের ম্যাথগুলো সমাধান করতে গিয়ে সমস্যায় পড়ছো। কৃষির পদার্থবিজ্ঞানে প্রায় সবই ম্যাথ আসবে, থিওরি ২-৩ টা প্রশ্ন আসবে। তাই এই শেষ মুহূর্তে বিগত সালে আসা ম্যাথ, টপিকসের ম্যাথ এবং প্রতিটা অধ্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ টপিকসের ম্যাথগুলো বারবার অনুশীলন করো। পদার্থবিজ্ঞানে সব সূত্র মুখস্থ রাখতে পারলে এবং সমানুপাতিক ব্যস্তানুপাতিক সম্পর্ক গুলোতে ভালো ধারণা থাকলে ৬০% প্রশ্ন উত্তর করা সম্ভব। বিগত সাল গুলোতে কিছু কিছু কৃষিতে ক্যালকুলেটরের ব্যবহার ছিলো। তাই প্রশ্নও তেমনই হতো। কিন্তু এখন যেহেতু ক্যালকুলেটর ব্যবহার নেই, তাই যেগুলো করতে ক্যালকুলেটর আবশ্যক সেগুলো স্কিপ করে যাও। তবে বিগত প্রশ্নের টাইপগুলোতে মান পরিবর্তন করে দিলে ক্যালকুলেটর ছাড়া করা সম্ভব এমন টপিকসগুলো অবশ্যই অনুশীলন করে যেতে হবে। আমির স্যার অথবা তপন স্যারের বই- এর শেষের বহুনির্বাচনিগুলো অবশ্যই ভালভাবে পড়তে হবে।

গণিত

যারা মেডিকেলের প্রস্তুতি নিয়েছিলে প্রায় সবারই বড় ভয়টা এখন ম্যাথ নিয়ে। ম্যাথ নিয়ে ভয়ের কিছুই নেই। বিগত প্রশ্ন এবং টাইপস থেকে এমনিই ১০ এর বেশি কমন পাবে। তাই বিগত প্রশ্ন ও টাইপসগুলো প্র্যাকটিস করো। ম্যাথের বেশী প্রশ্ন আসে অন্তরীকরণ, যোগজীকরণ, সরলরেখা, জটিল সংখ্যা, সম্ভাব্যতা, বিন্যাস সমাবেশ, বৃত্ত ও ফাংশন থেকে। যোগজীকরণ এর ক্ষেত্রে সকল বিগত প্রশ্ন উত্তরসহ মুখস্থ করে ফেলতে হবে কারণ ঘুরেফিরে এগুলোই বারবার আসে। বিগত প্রশ্ন ও টাইপগুলো ভালভাবে অনুশীলন করলে এবং সহায়ক বই থেকে ভালভাবে অধ্যায় ভিত্তিক প্রস্তুতি নিলে ২০ এ ১৫-এর বেশি পাওয়া কঠিন কিছুনা। ম্যাথ বেশি বেশি অনুশীলন না করলে মনে থাকবে না। তাই বারবার বিগত প্রশ্নের টাইপগুলো এবং অধ্যায় ভিত্তিক গুরুত্বপূর্ণ টাইপগুলো প্র্যাকটিস করো।

ইংরেজি

ইংরেজি সব প্রশ্ন হবে বেসিক গ্রামার থেকে। প্রস্তুতি না নিলেও ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণির বেসিক ধারণা থেকে ৪-৫টা উত্তর করা সম্ভব।বেসিক গ্রামারের নিয়মগুলো দেখে গেলে সহজেই উত্তর করতে পারবে।

English এ যে যে টপিকস গুলো হতে প্রশ্ন বেশী হয়-

Right form of verb(১-২টা)
sentence (১-২টা)
Preposition (১টা)
Narration (১টা)
Voice change (১টা
Spelling (১টা)
Subject verb agreement (১টা)
Synonym +antonym (১টা)
Proverb (১টা)
Translation (১টা)

প্রতিটা টপিকসের ব্যতিক্রম পার্টগুলো অনেক গুরুত্বপূর্ণ। সেগুলো ভাল করে পড়লে খুব সহজে ৯ মার্কস পাওয়া যাবে। টপিকসগুলো একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির গ্রামার বই থেকে পড়লে ভালো হবে।

লেখক: শিক্ষার্থী, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ