‘আপনারা সহযোগিতা করলে আমার মাকে বাঁচাতে পারবো’

আর্জিনা বেগম ও লাবনী
আর্জিনা বেগম ও লাবনী  © টিডিসি ফটো

দুটি বিকল কিডনি নিয়ে মিরপুর কিডনি ফাউন্ডেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজ ইতিহাস বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী লাবনী হোসাইনের মা মোসা. আর্জিনা বেগম। লাবনীর মায়ের কিডনির ব্যয়বহুল চিকিৎসা তার পরিবারের একার পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তাই তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে লাবনী গ্রামের বাড়ি। তার বাবা একজন গার্মেন্টস শ্রমিক। লাবনী এবং তার বাবা-মায়ের সঙ্গে ছোট দুই ভাইকে নিয়ে ছোট্ট পরিবার তাদের। ছোট দুই ভাইয়ের এক ভাই এসএসসি পরীক্ষার্থী অন্য জনের বয়স পাঁচ বছর।

ফলে উপার্জনক্ষম একমাত্র দারিদ্র্য শ্রমিক পিতার পক্ষে তার মায়ের চিকিৎসা খরচ চালানো সম্ভব নয় বলে জানান লাবনী। দীর্ঘ বারো বছর ধরে কিডনি সমস্যায় ভুগছেন তার মা মোসা. আর্জিনা বেগম। 

লাবনী জানান, সর্বশেষ মাস খানেক আগে তার মা অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসেন ঢাকায়। মিরপুর কিডনি ফাউন্ডেশনে রেখে চলছে চিকিৎসা। কিন্তু সুস্থ থাকতে একদিন পর পর প্রতি সপ্তাহে চারবার করতে হয় ডায়েলসিস।

আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রীর উপহার ‘লাল বাস’ বুঝে পেলো তিতুমীর কলেজ

‘‘সপ্তাহে খরচ হয় দশ হাজার থেকে বারো হাজার টাকা; যা পরিবার বহন করতে পারছে না। ডাক্তার বলেছেন সম্পূর্ণ সুস্থ হতে করতে হবে কিডনি প্রতিস্থাপন। যার আনুমানিক ব্যয়ভার সাড়ে তিন লাখ টাকা। কিডনি ডোনার পাওয়া গেলেও টাকার অভাবে তা প্রতিস্থাপন করা সম্ভব হচ্ছে না’’

লাবনী বলেন, আমার মা অনেক অসুস্থ ৷ দুটো কিডনিই নষ্ট। ডোনার থাকলে অপরেশন খরচ দিতে পারছি না; সাড়ে তিন লাখ টাকা লাগবে। তাই আপনাদের কাছে আমার আবেদন আমাকে আর্থিকভাবে সাহায্য করলে মা কে বাচাঁতে পারবো।

এদিকে, ফেসবুকে তার বন্ধু সহপাঠীরা সহযোগিতা চেয়ে ক্যাম্পেইন করে ফান্ড সংগ্রহ করছেন। ফান্ডের এক আহ্বায়ক ও তিতুমীর কলেজ সমাজবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আকাশ বলেন, আমরা সবাই চেষ্টা করছি তার জন্য টাকা সংগ্রহের। তবে যে টাকার প্রয়োজন কলেজ বন্ধ থাকায় তা আমাদের শিক্ষার্থীদের পক্ষে জোগাড় করা সম্ভব হচ্ছে না।

লাবনীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে এবং তাকে সহযোগিতা করতে নিচের নম্বরগুলো অনুসরণ করতে বলা হয়েছে-

01777674958 (বিকাশ)
01930234473 (বিকাশ)
01575012396 (বিকাশ)
01906927846 নগদ/রকেট


x

সর্বশেষ সংবাদ