অক্সিজেনের অভাবে বাবার মৃত্যু, দুই সপ্তাহে অক্সিজেন প্ল্যান্ট বানাল স্কুলছাত্র

অক্সিজেন
নিজের তৈরি অক্সিজেন প্ল্যান্টের সাথে তাহের মাহমুদ তারিফ  © সংগৃহীত

মাত্র দুই সপ্তাহে বাতাস থেকে অক্সিজেন উৎপাদন প্ল্যান্ট তৈরি করেছে তাহের মাহমুদ তারিফ। এতে খরচ হয়েছে মাত্র ৬৫ হাজার টাকা। তারিফ পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার পূর্ব টেংরি মহল্লার বকুলের মোড় এলাকার মৃত আব্দুস সালামের ছেলে এবং ঈশ্বরদীর সরকারি এস এম (সাঁড়া মরোয়ারি) মডেল হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১০ম শ্রেণির ছাত্র। তারিফ মঙ্গলবার (৮ জুন) ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদে তার আবিষ্কৃত প্ল্যান্টটি দিয়ে অক্সিজেন তৈরি করে দেখায়।

জানা গেছে, এক বছর আগে তারিফের বাবা আব্দুস সালাম মুমূর্ষু অবস্থায় অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুবরণ করেন। কিন্তু সেসময় তারিফ তার বাবার জন্য কিছুই করতে না পেরে প্রতিজ্ঞা করেছিল স্বল্প খরচে অক্সিজেন তৈরির। সেই প্রতিজ্ঞা থেকেই সে অল্প খরচে বাতাস থেকে অক্সিজেন উৎপাদনে প্ল্যান্ট তৈরি করে তারিফ।

এক বছরের আগে তার বাবার মৃত্যুর সময় অক্সিজেন সমস্যায় পড়তে হয় জানিয়ে তাহের মাহমুদ তারিফ জানায়, বর্তমানে করোনা সংক্রমণের কারণে অক্সিজেনের চাহিদাও কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। সবদিক চিন্তা করেই সে অল্প করেছে অক্সিজেন উৎপাদন করতে গবেষণা শুরু করে।

আরো পড়ুন দুই মাস পেছাল বুটেক্সের ভর্তি পরীক্ষা

ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) তত্ত্বাবধানে এবং স্কুল কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় তার গবেষণায় সফলতা অর্জন করেছে জানিয়ে তারিফ জানায়, ডায়নামো দিয়ে বাতাসকে প্রথমে একটি সিলিন্ডারে প্রবেশ করানো হয়। বাতাসে অক্সিজেন ছাড়াও অন্যান্য উপাদান থাকায় সেগুলো বের করার জন্য জিওলাইট ব্যবহার করা হয়েছে। জিওলাইটের মাধ্যম বাতাস থেকে অক্সিজেনকে একদিক দিয়ে এবং অন্যান্য উপাদানকে আরেকদিক দিয়ে বের করা হয়।

তার আবিষ্কৃত প্ল্যান্টে অক্সিজেন উৎপাদন ল্যাবরেটরি টেস্টে সফল জানিয়ে সে জানায়, এখন কম খরচে বৃহত্তর পরিসরে দেশে বিপুল পরিমাণ অক্সিজেন উৎপাদন করার বিষয়ে আশাবাদী সে।

তারিফ অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র উল্লেখ করে এসএম (সাঁড়া মরোয়ারি) মডেল হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আয়নুল ইসলাম জানান, দরিদ্র পরিবারের এই শিক্ষার্থী তার বাবার মৃত্যুতে অসহায় হয়ে পড়লেও দমে যায়নি। সে তার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। তারা ষষ্ঠ শ্রেণি থেকেই তাকে নানাভাবে সহযোগিতা করছেন বলেও জানান তিনি।

কম খরচে প্ল্যান্ট তৈরিতে তারিফকে আর্থিক সহযোগিতা করা হয়েছে জানিয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পিএম ইমরুল কায়েস বলেন, তারিফের অক্সিজেন ল্যাব পরীক্ষার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ও পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন বিভাগে যোগাযোগ করা হচ্ছে। ল্যাব টেস্টে সাফল্য প্রমাণিত হলে বৃহত্তর পরিসরে বড় প্ল্যান্ট তৈরি করে বিপুল পরিমাণ অক্সিজেন দেশেই কম খরচে উৎপাদন করা সম্ভব হবে বলেও জানান ইউএনও।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ