করোনায় মৃত্যুর জন্য দায়ী জিন চিহ্নিত

করোনাভাইরাস
প্রতীকী  © ছবি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মৃত্যুর জন্য কিংবা রোগের তীব্রতা দ্বিগুণ করার জন্য দায়ী ‘জিন’কে চিহ্নিত করেছে পোল্যান্ডের বিজ্ঞানীরা। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ এ তথ্য জানিয়েছে।

মেডিকেল ইউনিভার্সিটি অব বিয়ালিস্টকের গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পোল্যান্ডের জনগণের ১৪ শতাংশের দেহে এই জিনটি থাকতে পারে। এর বাইরে ইউরোপের জনগণের ৯ শতাংশ এবং ভারতের ২৭ শতাংশ মানুষের দেহে জিনটি থাকতে পারে।

আরও পড়ুন: সমাবর্তনে যোগ দিতে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন ওয়ালিদ

পোলিশ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, করোনার সংক্রমণে পোল্যান্ডে এক লাখেরও বেশি মানুষ মারা গেছে। সংক্রমণে মৃত্যু বা রোগের তীব্রতা বৃদ্ধির জন্য দায়ী জিনকে চিহ্নিত করতে পারায় এখন এমন লোকদের শনাক্ত করা যাবে। কোভিড-১৯ এ সংক্রমিত হতে পারেন এমন রোগীদের যখন পরীক্ষা করা হবে তখন জেনেটিক পরীক্ষাও অর্ন্তভূক্ত হতে পারে। আগামী জুনের শেষ নাগাদ এই পরীক্ষা অন্তর্ভুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে।

পোল্যান্ডের স্বাস্থ্যমন্ত্রী অ্যাডাম নিডজিয়েলস্কি বলেন, প্রায় দেড় বছরের গবেষণার পর করোনায় গুরুতর অসুস্থ হওয়ার এই প্রবণতার জন্য দায়ী জিন আবিষ্কার করা সম্ভব হয়েছে। তিনি এই আবিষ্কারের সুফল নিয়ে বলেন, এর মানে ভবিষ্যতে আমরা সেসব মানুষকে শনাক্ত করতে সক্ষম হবো যাদের করোনায় গুরুতর অসুস্থ হওয়ার এই প্রবণতা আছে।

আরও পড়ুন:  স্কুলে ক্লাস করছে রোবট, শিক্ষার্থী বাসায়

গবেষণা দলের সদস্য অধ্যাপক মারসিন মনিউসকো জানিয়েছেন, একটি জেনেটিক পরীক্ষা সেসব মানুষকে আরও ভালভাবে শনাক্তে সাহায্য করতে পারে যারা সংক্রমণের ক্ষেত্রে, এমনকি সংক্রমণ হওয়ার আগেই একটি তীব্র রোগের ঝুঁকিতে থাকতে পারে।

এদিকে বাংলাদেশেও করোনা ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। গত এক সপ্তাহে সংক্রমনের হার বেড়েছে কয়েকগুণ। মৃত্যুর সংখ্যাও দুই অংকের ঘরে পৌঁছেছে। করোনার প্রকোপ বাড়ায় সরকার ইতোমধ্যে ১১টি বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। লকডাউনে না গিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে জোর দিয়েছে সরকার। ঘরের বাইরে মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।


মন্তব্য

x