সিলেটে দেশের প্রথম ‘আর্টস কলেজ’ হচ্ছে

সিলেট
সিলেটে দেশের প্রথম ‘আর্টস কলেজ  © ফাইল ফটো

সিলেটে হচ্ছে দেশের প্রথম ‘আর্টস কলেজ’। শনিবার প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধন করবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড. একে আব্দুল মোমেন।

এ উপলক্ষ্যে গতকাল শুক্রবার বিকেলে সিলেট নগরের কুমারপাড়ায় সিলেট আর্টস কলেজের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। 

এ সময় কলেজটির উদ্যোক্তারা জানান, শিল্প সংস্কৃতির সমৃদ্ধ অঞ্চল সিলেটে এতোদিন শিল্পকলার কোন মাধ্যমেই উচ্চতর শিক্ষার সুযোগ ছিলো না। এই কলেজ প্রতিষ্ঠার ফলে সে অভাব ঘুচবে।

তারা জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে চারুকলা শিক্ষার জন্য আর্ট কলেজ রয়েছে। শিল্পকলার সব মাধ্যমে শিক্ষালাভের জন্য আলাদা কোন প্রতিষ্ঠান নেই। সে ক্ষেত্রে সিলেট আর্টস কলেজ অনন্য। 
মতবিনিময়কালে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কলেজের ট্রাস্টি দেবাশীষ দেবু। পরে, কলেজ প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য ও কার্যক্রম সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন সিলেট আর্ট কলেজের কলেজের অধ্যক্ষ হ্যারল্ড রশীদ, ট্রাস্টি শামসুল বাসিত শেরো ও উপাধ্যক্ষ হিসমাইল গনি হিমন।

সিলেট আর্টস কলেজের অধ্যক্ষ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হ্যারল্ড রশীদ বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই সিলেটে চারুকলা শিক্ষার জন্য একটি আর্ট কলেজ প্রতিষ্ঠার চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। সাবেক অর্থমন্ত্রী সদ্য প্রয়াত আবুল মাল আবদুল মুহিতও আমাদের উদ্যোগের সথে ছিলেন। তার অনুপ্রেরণায়ই ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর থেকে সিলেট আর্ট কলেজের দাপ্তরিক কার্যক্রম শুরু হয়। মুহিত এই কলেজের প্রধান উপদেষ্টা ছিলেন।’

হ্যারল্ড জানান, পদাধিকার বলে এই প্রতিষ্ঠানের ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন জেলা প্রশাসক। চলতি বছরে সিলেটের বর্তমান জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান প্রতিষ্ঠানটির দায়িত্ব নেয়ার পর চারুকলার পাশাপাশি শিল্পকলার অন্যান্য মাধ্যমও পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব দেন। তার প্রস্তাবেই পাঠ্যক্রমে চারুকলার পাশপাশি, সঙ্গীত, নাটক ও নৃত্য বিষয় যুক্ত করা হয়। সিলেট আর্ট কলেজের নাম পরিবর্তন করে ‘সিলেট আর্টস কলেজ’ রাখা হয়।

তবে প্রথম বছরে চারুকলা ও সঙ্গীত বিষয়ে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। পরবর্তীতে নাটক ও নৃত্য বিষয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে বলে জানান কলেজটির অধ্যক্ষ।

এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য সদর উপজেলার বটেশ্বরে এক একর জমি দান করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। তবে নিজস্ব ভ’মিতে অবকাঠামো নির্মাণের পূর্ব পর্যন্ত নগরের কুমপাড়পাড়ার সিলেট আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুলে অস্থায়ীভাবে পাঠদান কার্যক্রম চলবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

প্রতিষ্ঠানের উপদেষ্ঠা হিসেবে রয়েছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.একে আব্দুল মোমেন, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ, বরেণ্য চিত্রশিল্পী রফিকুন নবী, আবুল বারক আলভী, নেসার হোসেন, জামাল আহমদ, শিশির ভট্টাচার্য্য, গৌতম চক্রবর্তী, ভাস্কর তরুণ ঘোষ, উচ্চাঙ্গ সংগীত শিল্পী শম্পা রেজা, নজরুল সংগীত শিল্পী নাশিদ কামাল, রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী সাদী মোহম্মদ, নৃত্যশিল্পী শিবলী মোহাম্মদ, স্থপতি সৈয়দা জেরিনা হোসেন, নাট্যশিল্পী নায়লা আজাদ, শিল্পী সায়ান চৌধুরী অর্নব প্রমুখ। 


x