ভিসি ও ডিনস সনদ পেল গ্রিন ইউনিভার্সিটির ২৬০ শিক্ষার্থী

ভিসি ও ডিনস সনদ
ভিসি ও ডিনস সনদ পেল গ্রিন ইউনিভার্সিটির ২৬০ শিক্ষার্থী।  © লোগো

পরীক্ষায় কৃতিত্বপূর্ণ ফল অর্জন করায় গ্রিন ইউনিভার্সিটির ৩৬০ শিক্ষার্থীকে ভিসি ও ডিনস সার্টিফিকেট দেয়া হয়েছে। আজ বুধবার (২৮ অক্টোবর) অনলাইন প্ল্যাটফর্মে জুমে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ফল-২০১৯ সেমিস্টারের জন্য এই সার্টিফিকেট দেয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকিরের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বক্তব্য রাখেন প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো: ফায়জুর রহমান, গ্রিন বিজনেস স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. গোলাম আহমেদ ফারুকী ও অধ্যাপক এসএমকে নাজমুল হক।

সার্টিফিকেট বিতরণ শেষে অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, যেকোনো অর্জনই শিক্ষার্থীদের এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা। সেখানে ভিসি-ডিনস সার্টিফিকেটের মত বিষয় নিঃসন্দেহে বড় ব্যাপার। তিনি শিক্ষার্থীদের একাডেমিক অর্জন কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতে সমাজ এমনকি রাষ্ট্র গঠনে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির বলেন, শিক্ষার্থীরা হলো বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি বা দূত। তাদের ওপর বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম নির্ভর করছে। তিনি শিক্ষার্থীদের প্রত্যেক সেমিস্টারে নতুন কিছু জানার পরামর্শ দেয়ার পাশাপশি সকল অর্জনের আনন্দ পিতা-মাতার সঙ্গে ভাগাভাগি করার আহ্বান জানান।

ভিসি আরও বলেন, আজ যারা ডীন সনদপত্র পেয়েছ, তোমরা চেষ্টা করবে আগামীতে ভিসি সনদপত্র পেতে, আর যারা ভিসি সনদপত্র পেয়েছ, তোমরা চেষ্টা করবে চ্যান্সেলর সনদপত্র পেতে।

প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, একুশ শতাব্দীর সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে শুধু একাডেমিক ডিগ্রী পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের সব ধরনের কার্যক্রমে পারদর্শী হতে হবে। এ সময় তিনি প্রযুক্তির শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

প্রসঙ্গত, ফল সেমিস্টার-২০১৯ ফলাফলের জন্য এই সার্টিফিকেট পাওয়া মোট ৩৬০ শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৭৫ ছাত্র-ছাত্রী ভিসি এবং ১৮৫ জনকে ডিন সার্টিফিকেটধারী। শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার ফলে জিপিএ-৩.৯০ থেকে ৪.০০ পেলে ভিসি সার্টিফিকেট এবং জিপিএ-৩.৮০ থেকে ৩.৮৯ অর্জন করলে ডিনস সার্টিফিকেট লাভ করে থাকে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ