শিক্ষিকাকে শিক্ষা কর্মকর্তার কুপ্রস্তাব: ডিসির কাছে স্মারকলিপি

ইভটিজিং
ডিসির কাছে স্মারকলিপি  © ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এক শিক্ষিকাকে ইভটিজিং ও মানসিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন ওই স্কুলের শিক্ষকরা। ভুক্তভোগী বিদ্যানিকেতন হাই স্কুলের শিক্ষিকা।

সোমবার (২০ জুন) দুপুরে জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সালাউদ্দিন রঞ্জু এ স্মারকলিপি গ্রহণ করেন।

এ সময় জেলা প্রশাসকের এনডিসি এসএম রাসেল ইসলাম নূরসহ বিদ্যানিকেতন হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার সাহা, শিফট ইনচার্জ সালমা আক্তার, শিক্ষক অরবিন্দ কর্মকারসহ অন্যান্য শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে বিদ্যানিকেতন হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার সাহা জানান, তার স্কুলের নারী শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার কারণে ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলা প্রশাসনের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করা হলে মঙ্গলবার থেকে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এর আগে গত ১৬ জুন ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযোগ করেছিলেন শহরের পশ্চিম দেওভোগ এলাকায় অবস্থিত বিদ্যানিকেতন হাই স্কুলের ওই শিক্ষিকা।

সেই অভিযোগ উল্লেখ করেছিলেন, ১৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০ দফা কর্ম পরিকল্পনা নিয়ে সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় বিদ্যানিকেতনের একজন পুরুষ এবং একজন নারী শিক্ষিকা অংশ নেন। একপর্যায়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু তালেব ওই নারী শিক্ষিকার পাশের চেয়ারে বসে নানা রকম কুপ্রস্তাব দেন।

তবে এ বিষয়ে কথা বলার জন্য সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এস এম আবু তালেবের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে অন্যজন ফোন ধরে বলেন ‘তিনি তার অসুস্থ মাকে নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। তাই এখন কথা বলতে পারবেন না।’ পরে যোগাযোগ করতে বলা হয়।


x

সর্বশেষ সংবাদ