সেই ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির মালিক এখন ভারতীয়

সেই ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির মালিক এখন ভারতীয়
সঞ্জিব মেহতা  © সংগৃহীত

ব্যবসা করতে এসে দীর্ঘ সময় ভারতে শাসন ও শোষণ করেছে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি। সেই কোম্পানিটিই সময়ের বিবর্তনে এখন একজন ভারতীয়র মালিকানাধীন।

ডাব্লিউআইও নিউজে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে ভারতীয় উদ্যোক্তা সঞ্জিব মেহতা ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির মালিক। ভারত থেকে ইউরোপে মশলা, চা এবং অন্যান্য দ্রব্য আমদানি করার জন্য ১৬০০ সালে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১৮৫৭ সালে সিপাহী বিদ্রোহের কারণে তা ভেঙে দেওয়া হয়।

২০১০ সালে ১৫ মিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে কোম্পানির শেয়ারের সবচেয়ে বড় অংশ কিনে এর গর্বিত মালিক হন সঞ্জীব। জটিল ও সময়সাপেক্ষ একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ৪০ জন শেয়ারহোল্ডারের কাছ থেকে কোম্পানিটি কিনে নেন মুম্বাইয়ের এক হীরা-ব্যবসায়ী পরিবারে জন্ম নেওয়া সঞ্জীব মেহতা। কিন্তু কোম্পানি অধিগ্রহণের পরেই হাল ছেড়ে দেননি সঞ্জীব।

আরও পড়ুন: মহাকাশে রহস্যময় রেডিও সংকেত ঘুম কেড়েছে বিজ্ঞানীদের

২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারহোল্ডাররা পুনরায় এটিকে চালু করার উদ্যোগ নেন। তার নেতৃত্বে বিলাসবহুল গিফট সেট, চা, কফি, জ্যাম এবং এ ধরনের আরো অনেক পণ্য ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মে বিক্রির চিন্তা করছে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি। তবে এ কথা সত্যি যে শুধুমাত্র আবেগের বশবর্তী হয়ে কোম্পানি কিনেননি মেহতা। কারণ সঞ্জীব মেহতার কাছে ব্যবসা আক্ষরিক অর্থেই গুরুত্বপূর্ণ। ২০১০ সালে লন্ডনে প্রতিষ্ঠানটির প্রথম দোকান শুরু করেন তিনি।

১৬০০ সালে যাত্রা শুরু করা ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ছিল ১৭ শতক ও ১৮ শতকের শুরুতে বিশ্ব বাণিজ্যে রাজত্ব করা সর্বপ্রথম ও সর্ববৃহৎ কোম্পানি। ১৭৫৭ সালে ভারতে প্রবেশ করার পর দ্রুততম সময়ের মধ্যে ভারতের মাটিতেও রাজত্ব করতে শুরু করে এই কোম্পানি। এ অঞ্চলের স্থানীয় কৃষক ও ব্যবসায়ীদের দলিত করে ভারতজুড়ে নিজেদের একচেটিয়া ব্যবসা শুরু করে এবং দেশীয় কৃষি ব্যবস্থাকে পঙ্গু করে দেয়।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি থেকে শুরু করে ব্যবসা-বাণিজ্য, সব ক্ষেত্রেই ভারতীয়রা আজ বিশ্বে শীর্ষ পর্যায়ে। গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই বা ব্রিটেনের অন্যতম ধনী ব্যক্তি লক্ষ্মী মিত্তলই হন, ভারতীয়রা সব জায়গায়ই নিজেদের প্রতিভা এবং উদ্যোগ প্রমাণ করেছে। ২০০ বছর ধরে ব্রিটিশদের দ্বারা নিপীড়িত একটি দেশের জন্য এই স্বল্প সময়ে এতকিছু অর্জন করা অসাধারণের চেয়েও বেশি কিছু। 

লোকে বলে, ইতিহাসের গতিপথ পরিবর্তন করার ক্ষমতা তাদের হাতেই রয়েছে যারা স্বপ্ন দেখেন। আর সঞ্জীব মেহতা তেমনই একজন ভারতীয়, যিনি এই প্রবাদবাক্য প্রমাণ করে দেখিয়েছেন।


x

সর্বশেষ সংবাদ