মহামারিতে শীর্ষ ১০ ধনীর সম্পদ দ্বিগুণ হয়েছে!

ধনী
শীর্ষ ১০ ধনী  © ফাইল ছবি

করোনা মহামারির সময়ে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ধনীদের সম্পদ বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। অন্যদিকে, একই সময়ে আরও বহু সাধারণ মানুষ দারিদ্র সীমার নিচে নেমে গেছে। ব্রিটিশ আন্তর্জাতিক দাতব্য ও ত্রাণসংস্থা অক্সফামের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, অক্সফামের হিসাবে নিম্নআয়ের কারণে প্রতিদিন পৃথিবীতে ২১ হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। অন্য দিকে, গত ২০২০ সালের মার্চ থেকে বিশ্বের ১০ শীর্ষ ধনীর সম্পদের পরিমাণ দ্বিগুণের বেশি বেড়েছে।

আরও পড়ুন: ভর্তি বাতিলে টাকা নিচ্ছে যবিপ্রবি

দাতব্য সংস্থার উদ্ধৃত ফোর্বসের পরিসংখ্যান অনুসারে বিশ্বের এই ১০ জন ধনী ব্যক্তি হলেন- ইলন মাস্ক, জেফ বেজোস, বার্নার্ড আর্নল্ট এবং তার পরিবার, বিল গেটস, ল্যারি এলিসন, ল্যারি পেজ, সের্গেই ব্রিন, মার্ক জুকারবার্গ, স্টিভ বলমার এবং ওয়ারেন বাফেট।

অক্সফাম জানিয়েছে, মহামারির শুরু থেকে ধনীদের সম্পদ ৭০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে বেড়ে ১ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে। আর প্রতিদিন সম্পদ বৃদ্ধির পরিমাণ গড়ে ১ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলার।

অন্যদিকে সম্পদ বৃদ্ধির হারে ধনীদের মধ্যেও ব্যাপক পার্থক্য রয়েছে। উদাহরণ স্বরূপ, বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী ইলন মাস্কের সম্পদ করোনা মহামারির মধ্যে বেড়েছে ১ হাজার শতাংশেরও বেশি। আরেক শীর্ষ ধনী বিল গেটসের সম্পদ বেড়েছে ৩০ শতাংশ হারে।

আরও পড়ুন: শাবির ঘটনায় ৮ সদস্যের তদন্ত কমিটি

অক্সফাম গ্রেট ব্রিটেনের প্রধান নির্বাহী ড্যানি শ্রীক্ষনদারাজাহ গণমাধ্যমকে বলেন, 'মহামারি চলাকালে প্রায় প্রতিদিনই একজন করে নতুন বিলিয়নিয়ার হচ্ছেন। অথচ, লকডাউনের কারণে বিশ্বের ৯৯ শতাংশ মানুষের আর্থিক অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও পর্যটন কমেছে। ফলে, বিশ্বে ১৬ কোটি মানুষ দারিদ্র হয়েছে।'

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় কিছু একটা গভীর ত্রুটি রয়েছে’।

বিশ্বব্যাংকের তথ্যের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা অক্সফামের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, স্বাস্থ্যসেবার অভাব, ক্ষুধা, লিঙ্গ-ভিত্তিক সহিংসতা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বিশ্বে প্রতি চার সেকেন্ডে একজনের মৃত্যু হচ্ছে।


x