শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে প্রাথমিকে ঝরে পড়ার হার

শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে প্রাথমিকে ঝরে পড়ার হার
প্রতীকী

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যায়ে শিশুদের ঝরে পড়ার হার প্রায় শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে। আজ শনিবার রাতে রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ের বলরুমে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

কে এম খালিদ এমপি বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা অবৈতনিকীকরণ, উপবৃত্তি প্রদান ও বছরের প্রথম দিনে শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে বই বিতরণ করার ফলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এনরোলমেন্ট বা অন্তর্ভুক্তি প্রায় শতভাগে উন্নীত হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীদের হাতে যথাসময়ে উপবৃত্তির টাকা পৌঁছে দেয়াতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার হার প্রায় শূন্যের কোটায় নেমে গেছে। এমনকি কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতেও ডিজিটাল পদ্ধতি মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে উপবৃত্তির টাকা যথাসময়ে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের প্রশংসা করে তিনি বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছেলেদের চেয়ে মেয়েদের এনরোলমেন্ট হার বেশি। মেয়েদের ক্ষেত্রে শতকরা ১০০ ভাগ আর ছেলেদের ক্ষেত্রে ৯৯ দশমিক ৭ ভাগ। আর এসব প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ, বলিষ্ঠ, দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে সম্ভব হয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ