গরু-ভেড়া ঢেকুর তুললে দিতে হবে কর!

গরু-ভেড়া ঢেকুর তুললে দিতে হবে কর!
গরু  © সংগৃহীত

গরু ও ভেড়া ঢেকুর তুললে এর জন্য মালিককে কর দিতে হবে। এমনই নিয়ম চালুর পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে নিউজিল্যান্ড। জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য ক্ষতিকর গ্রিনহাউজ গ্যাস মিথেন নিঃসরণ কমাতে এ পরিকল্পনা নিয়েছে দেশটি।

নিউজিল্যান্ডই প্রথম দেশ যারা কৃষকদের পালন করা প্রাণী থেকে মিথেন নিঃসরণের জন্য কর আরোপের এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে।

বিবিসি জানায, ৫০ লাখ মানুষের দেশ নিউজিল্যান্ডে গরু-ছাগলের সংখ্যা ১ কোটি এবং ভেড়ার সংখ্যা ২ কোটি ৬০ লাখ। দেশটির মোট গ্রিনহাউজ গ্যাস বিশেষত, মিথেনের প্রায় অর্ধেকই নিঃসরণ হয় কৃষিক্ষেত্র ও গবাদি পশু থেকে।

তাপমাত্রা বাড়িয়ে দিতে এবং জলবায়ু-সংকট ত্বরান্বিত করতে মিথেন গ্যাসের প্রভাব খুবই মারাত্মক। কার্বন ডাই অক্সাইডের তুলনায় মিথেনের উষ্ণায়ন ক্ষমতা ৮০ গুণেরও বেশি। তাই চটজলদি বিশ্ব উষ্ণায়ন প্রক্রিয়াকে ধীরগতির করতে মিথেন নিঃসরণ কমানো খুবই জরুরি।

নিউজিল্যান্ডে মোট মিথেন গ্যাসের ৮৫ শতাংশের বেশি নিঃসরণ হয় দুটি কৃষি উৎস গবাদিপশুর ঢেকুর এবং গোবর থেকে। গরুর ঢেকুর থেকে ৯০-৯৫ শতাংশ মিথেন নিঃসরণ হয়। আর ৫ থেকে ১০ শতাংশ মিথেন নিঃসরণ হয় গরুর গোবর এবং পেট ফাঁপা থেকে।

আরও পড়ুন: আবারও দাম বাড়ছে গ্যাস, বিদ্যুৎ, সারের

যদিও এর আগে গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন কমানোর প্রকল্পে কৃষিখাতকে যুক্ত করা হয়নি দেশটিতে। এ নিয়ে সরকারের সমালোচনা করেন পরিবেশবিদরা। একই সঙ্গে বৈশ্বিক উষ্ণতা রোধে সরকারকে পদক্ষেপ নিতে আহ্বান জানিয়ে আসছিলেন তারা।

দেশটির জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রী জেমস শ বলেন, এতে কোনো প্রশ্ন নেই যে আমরা বায়ুমন্ডলে যে পরিমাণ মিথেন গ্যাস ছড়াচ্ছি তা কমাতে হবে। একই সঙ্গে কৃষির জন্য একটি কার্যকর নির্গমন কর ব্যবস্থা আমাদের লক্ষ্য অর্জনে। মূল ভূমিকা পালন করবে।

কর ব্যবস্থার এ প্রস্তাবের অধীনে ২০২৫ সাল থেকে কৃষকদের তাদের গ্যাস নির্গমনের জন্য অর্থ প্রদান করতে হবে। সরকারের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে যারা মিথেন নির্গমন কমাবেন, তাদের জন্য বিশেষ প্রণোদনারও ব্যবস্থা থাকবে। মিথেন কমানোর জন্য গবাদিপশুকে বিশেষ খাবার দেওয়া, জমিতে গাছ লাগানোসহ নানাবিধ বিষয়ও বিবেচনা করা হবে।


x