গুচ্ছ-মেডিকেলসহ সব বিশ্ববিদ্যালয়ের কমপ্লিট গাইডলাইন (ইংরেজি)

সাজেশন
লেখক ও ভর্তি পরীক্ষার্থী  © ফাইল ফটো

ভর্তিচ্ছুদের জন‍্য চরম আতংকের নাম ইংরেজি। ইংরেজি নিয়ে জল্পনা-কল্পনার যেন অন্ত নেই।মজার ব্যাপার ইংরেজিতে খুব অল্প সময় ব্যয় করে সর্বোচ্চ ফিডব‍্যাক পাওয়া সম্ভব। আজ আলোচনা করব সকল বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার উপযোগী একটি ব‍্যাসিক সাজেশন নিয়ে।

গ্রামার অংশ

ভর্তি পরীক্ষায় ইংরেজিতে ভালো নম্বর ক‍্যারি করতে গ্রামার অংশে ভালো করার বিকল্প নেই। যেসব টপিকের ধারনা অত‍্যাবশাকীয়:

Article, Number and gender, Voice, Narration, Question tag, Conditional Sentence, Subject verb agreement, Right form of verbs, Dangling modifier, Parts of speech (Noun, Adjective, Adverb, verb), Identification of parts of speech, Affirmative-negative agreement, Subjunctive, WH question and embedded question, Transformation of Sentences

ভোকাবুলারি অংশ

প্রশ্নের একটা বড় অংশ আধিপত্য করে এই ভোকাবুলারি পার্ট। এখানে ভালো করতে অধিক চর্চার বিকল্প নেই।
যেসব টপিক থেকে প্রশ্ন বরাবরই আসে:

Vocabulary (Synonym, Antonym), Appropiate Preposition, Group verb, Spelling, Analogy, Substitution, Idioms and phrase, Translation and proverb

ভোকাবুলারিতে ভালো করার কিছু কার্যকর টেকনিক

★একটা ভালো মানের বই সিলেক্ট করতে হবে। অনেকগুলো বই একসাথে না পড়ে একটি বইকে মাদার বোর্ড ধরে সেটা ভালোভাবে শেষ করতে হবে। তারপর প্রয়োজনবোধে অন্য বই দেখতে হবে।
★নিজের স্মার্টফোনকে এডমিশনের সময় কাজে লাগানোর সবচেয়ে সেরা জায়গা হলো ডিকশনারি।
‘‘Bangla dictionary’’ এবং ‘‘E2B Dictionary’’ নামে দুটি জনপ্রিয় অ‍্যাপস আছে। হঠাৎ কোন অপরিচিত শব্দ দেখলে অ‍্যাপস থেকে দেখে নিতে পারেন।
★নোট খাতা বানাতে হবে। যেগুলা পড়বেন সেগুলা লিখে রাখার চেষ্টা করবেন। সপ্তাহে ছয়দিন পড়ার পর সপ্তম দিন সব রিভিশন দিতে হবে।
★মনে মনে না পড়ে অবশ্যই কমবেশি শব্দ করে পড়তে হবে। তাহলে অধিক সময় মনে থাকবে।
★খুব ভোরে ভোকাবুলারি পড়লে মনে থাকে বেশিদিন।

টেক্সটবুক

ঢাবি, জাবির জন‍্য বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ভোকাবুলারির বিষয়গুলো টেক্সট বুক থেকেই দেয় অনেক সময়। প্যাসেজ, কম্প্রিহেনশন অংশেও প্রশ্ন দিতে পারে। তাই রেগুলার ৩০ মিনিট টেক্সট বুকটা দেখা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ মিনিং, স্পেলিংগুলো।

প্রশ্নব‍্যাংক পর্যালোচনা

ভর্তি পরীক্ষায় ইংরেজিতে ভালো করার অন্যতম পূর্বশর্ত প্রশ্নব‍্যাংক থেকে কাঙ্ক্ষিত বিশ্ববিদ্যালয়টির বিগত সালের প্রশ্ন প্রাকটিস করা। এতে কোন টপিক থেকে প্রশ্ন হচ্ছে সেই ধারনা তৈরি হবে। সেই সাথে কনফিডেন্স বহুগুনে বেড়ে যাবে।

বিসিএস প্রশ্ন পর্যালোচনা

বিসিএস, আইবিএ কিংবা বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের প্রশ্নগুলো অত্যন্ত স্ট্যান্ডার্ড মানের হয়। কমপক্ষে বিগত ১০ বছরের বিসিএস ইংরেজি অংশ সলভ করতে হবে। এতে কনফিডেন্স যেমন বাড়বে তেমনি হুবহু রুল কমন পাবার সম্ভাবনাও বাড়বে।

ইংরেজি পত্রিকা পড়া

প্রতি সপ্তাহে একটি ইংরেজি পত্রিকা পড়তে হবে। পুরো পত্রিকা পড়ার দরকার নেই। সপ্তাহজুড়ে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু, সমসাময়িক সমস্যাগুলোর নিউজ কলাম থেকে নতুন ওয়ার্ড কালেক্ট করে সেটার মিনিং বের করে খাতায় নোট করতে হবে, স্পেলিংগুলোও ঝালিয়ে নিতে হবে।

লেখক: শিক্ষার্থী সাইকোলজি বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ