মালয়েশিয়ায় পুলিশের হাতে অ্যারেস্ট হলে যা করবেন

মালয়েশিয়ায় পুলিশের হাতে অ্যারেস্ট হলে যা করবেন
  © টিডিসি ফটো

গতরাত ১২টার পর একজন ফোন দিয়েছে। পাসপোর্ট না থাকায় একজন স্টুডেন্টকে পুলিশে গ্রেপ্তার করে নিয়ে গেছে। রাত বেশি হওয়ায় তাৎক্ষণিকভাবে তার জন্য কিছু করতে পারিনি; সকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলি।

সকালে স্টুডেন্টের ওয়াইফ এবং আরো কয়েকজন ভার্সিটিতে আসে। কোন থানায় কোথায় থেকে নিয়ে গেছে এসবের কিছুই তারা জানে না। গ্রেপ্তারের সাথে সাথে অনেকগুলো ভয়েস ম্যাসেজ স্টুডেন্ট তার ওয়াইফকে দিয়েছে। যার মধ্যে একটি ভয়েসেও কোথায় আছে কোথায় থেকে নিয়ে গেছে বা কোন অফিসার ছিলো এসবের কোন তথ্য নেই। স্টুডেন্টের ফোনও অফ।

যার ফলে আগামী দুইদিনের মধ্যে স্টুডেন্টের কোন খোঁজ পাওয়া সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছে ভিসা ডিপার্টমেন্ট।

এরকম ভুক্তভোগী আপনিও হতে পারেন। তাই কিছু বেসিক জিনিস মনে রাখবেন যা অবশ্যই করণীয়-

১. কোন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন এবং কোন সময়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সেটি কাউকে ম্যাসেজে জানান। এতে করে সেই এলাকায় নির্দিষ্ট টাইমে কোন অফিসারের নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়েছিলো সেটি জানা যাবে।

২. কিছু সময় আপনাকে থানায় রাখা হবে এবং আপনার পরিচিত মানুষদের সাথে যোগাযোগের জন্য সুযোগ দেয়া হবে। যদি না দেয় তবে কোনভাবে সুযোগ করে থানার নামটি কাউকে টেক্সট করে রাখেন। সবচেয়ে ভালো হয় অফিসারের নামটিও তার নেমপ্লেট থেকে দেখে নিন এবং সেটিও পাঠিয়ে দিন।

৩. থানায় থাকাকালে কিছু করতে না পারলে পরবর্তীতে সিচ্যুয়েশান কঠিন হয়ে যাবে। তাই ক্যাম্পে নেয়ার আগেই ঠান্ডা মাথায় পুলিশদেরকে রিকুয়েস্ট করে হলেও আপনার অবস্থান রিলেটিভদের নিকট পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

এই জিনিসগুলো করতে পারলে আপনি যদি বৈধ ভিসাধারী হোন এবং পাসপোর্ট যদি কোন কারণে ভার্সিটিতে জমা থাকে তবে ভার্সিটিই আপনাকে দ্রুত খোঁজে বের করে নিয়ে আসবে।

লেখক: মালয়েশিয়ার মাসা ইউনিভার্সিটির ভিপি


মন্তব্য