তরুণ প্রজন্মের অবক্ষয় রোধে সহশিক্ষা কার্যক্রম বাড়াতে হবে

ঢাকা কলেজ
‘বিপি দিবস’র বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান  © টিডিসি ফটো

ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ এবং বাংলাদেশ স্কাউটসের জাতীয় উপকমিশনার অধ্যাপক আইকে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার বলেছেন, ‘তরুণ প্রজন্মের নৈতিক অবক্ষয় রোধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং সহশিক্ষামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম বাড়াতে হবে। যাতে করে শিক্ষার্থীদের নৈতিকতার ভিত্তি মজবুত হয়। নয়তো ভবিষ্যৎ প্রজন্ম নানানভাবে অনৈতিক কাজের সাথে যুক্ত হয়ে যাবে। এতে করে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নে বাঁধা পড়বে।’

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে স্কাউট আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা লর্ড ব্যাডেন পাওয়েলের ১৬৪ তম জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপের উদ্যোগে আয়োজিত ‘বিপি দিবস’র বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অধ্যক্ষ সেলিম আরও বলেন, বিশ্বের লাখ লাখ স্কাউট অনুরাগীদের কাছে স্কাউটের প্রতিষ্ঠাতা ব্যাডেন পাওয়েলের জন্মদিনটি খুবই আনন্দের দিন। অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশ স্কাউটসও দিবসটিকে ‘বিপি দিবস’ হিসেবে পালন করে থাকে। দিনটিকে অনেকে ‘স্কাউট দিবস’ হিসেবেও অভিহিত করে থাকেন। এইদিনে আমাদের প্রত্যাশা থাকবে যেন, সারাদেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্কাউটিং আন্দোলন আরও গতিশীল হওয়ার মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মের চিন্তা,কথা ও কাজে নির্মলতা আসে।

বিপি দিবসের অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা কলেজের উপাধ্যক্ষ এবং ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপের সহসভাপতি অধ্যাপক এটিএম মইনুল হোসেন, অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপের সম্পাদক অধ্যাপক শামিম আরা বেগম, গ্রুপ রোভার স্কাউট লিডার সহযোগী অধ্যাপক আনোয়ার মাহমুদ, গ্রুপ কোষাধ্যক্ষ সহকারী অধ্যাপক মোসাম্মৎ আয়েশা আক্তার সহ অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ।

আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বল্প পরিসরে ক্যাম্পাস প্রাজ্ঞনে বর্ণাঢ্য র‍্যালি, কুইজ প্রতিযোগিতা, পথসভা এবং বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হয়।

শিক্ষার্থীদের মেধা মননের বিকাশে আগামীতে আরও বৃহৎ পরিসরে এসব কর্মসূচি পালন করা হবে বলেও জানান ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউটের গ্রুপের সম্পাদক অধ্যাপক শামিম আরা বেগম। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের শিক্ষা গ্রহনের পাশাপাশি মানবিক কার্যক্রমের প্রতি আগ্রহী করে তুলতে হবে। কেননা শিক্ষার সাথে যখন সঠিক এবং নৈতাকতাসম্পন্ন নেতৃত্বগুণ যুক্ত হবে তখন ঐ শিক্ষার্থী প্রকৃত মানুষ হতে পারবে।

এছাড়াও করোনা পরবর্তী সময়ে কলেজে স্কাউটিং কার্যক্রম আরও বেগবান এবং গতিশীল করতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ১৮৫৭ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি লন্ডনের হাইড পার্কের পাশে একটি বাড়িতে জন্ম নেন ব্যাডেন পাওয়েল।১৯৪১ সালে ৮ জানুয়ারি তিনি মারা যান। এর আগে ইংল্যান্ডের ব্রাউন্সি দ্বীপে ১৯০৭ সালের ২৯আগষ্ট থেকে ৮সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২০ জন স্কাউট নিয়ে শুরু হয়েছিল স্কাউট আন্দোলন। বর্তমানে পুরো বিশ্বে সে সংখ্যা দশকোটি ছাড়িয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ