সড়কে দুর্ঘটনায় প্রাথমিক চিকিৎসা দেবে ট্রাফিক পুলিশ

সড়কে দুর্ঘটনায় প্রাথমিক চিকিৎসা দেবে ট্রাফিক পুলিশ
সনদপত্র বিতরণ  © ফাইল ফটো

বাংলাদেশে সড়কে দুর্ঘটনার পরিস্থিতিতে দ্রুত সাড়া দিতে ট্রাফিক পুলিশকে প্রাথমিক চিকিৎসার প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মতিঝিল ট্রাফিক বিভাগের ১০০ জন পুলিশ সদস্য ‘প্রাথমিক চিকিৎসা প্রশিক্ষণ’কোর্স সম্পন্ন করায় প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করা হয়। বুধবার (০৩ মার্চ) ডিএমপি সদর দফতরে প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করেন ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম) মো: মনিরুল ইসলাম।

সনদপত্র বিতরণকালে তিনি বলেন, এই প্রশিক্ষণের ফলে সড়কে যে কোনো দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের তাৎক্ষণিক চিকিৎসা দিতে পারবে ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা। আমি বিশ্বাস করি, এই ট্রেনিংয়ের ফলে তারা আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবে। এছাড়া প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য আইসিআরসির দেয়া বিভিন্ন সরঞ্জাম সড়কে আহত ব্যক্তিদের সেবায় কাজে আসবে।

এ সময় ট্রাফিক পুলিশের দ্রুত সাড়া প্রদানকারীদের প্রাথমিক চিকিৎসার মত গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য আইসিআরসিকে তিনি ধন্যবাদ জানান তিনি।

আইসিআরসির হেড অব অপারেশন ডেভিড মন্তেস বলেন, যেসব মানুষ বিভিন্ন সহিংস ঘটনায় বা সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন তাদের যথাসময়ে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা পাওয়া উচিত এবং প্রয়োজনে তাদেরকে নিকটস্থ স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে নেয়া উচিত। আমরা বাংলাদেশে দুর্ঘটনার পরিস্থিতিতে দ্রুত সাড়া প্রদানকারীদের জন্য এ ধরনের প্রশিক্ষণ নিয়মিতভাবে আয়োজন করে আসছি। প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদানের মাধ্যমে তারা যেন মানুষের জীবন রক্ষা করতে এবং বাঁচাতে সক্ষম হয় সেটিই আমাদের প্রত্যাশা।

সিটিজেন সার্ভিস সেন্টার প্রচারাভিযানের ক্যাম্পেইনের আওতায় ডিএমপি ও ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব দ্য রেডক্রস (আইসিআরসি) এর যৌথ ব্যবস্থাপনায় রাজারবাগ ট্রাফিক ব্যারাক কনফারেন্স হল রুমে এ প্রশিক্ষণ কোর্স অনুষ্ঠিত হয়। তিন সপ্তাহব্যাপী ‘প্রাথমিক চিকিৎসা প্রশিক্ষণ’ কোর্সের কার্যক্রম গত ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে ২ মার্চে শেষ হয়। এ প্রশিক্ষণে মতিঝিল ট্রাফিক বিভাগের কনস্টেবল থেকে ইন্সপেক্টর পর্যন্ত মোট ১০০ জন সদস্য প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস) কৃষ্ণ পদ রায়, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) এ কে এম হাফিজ আক্তারসহ ডিএমপির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

 


মন্তব্য