জনপ্রিয় হচ্ছে চোখের লেন্স

জনপ্রিয় হচ্ছে চোখের লেন্স

মনের কথা বলে চোখ। তাই এটাকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে একটু কষ্ট করা যেতেই পারে। এক্ষেত্রে হাল আমলে ক্রমান্বয়ে যে ফ্যাশনটি জনপ্রিয় হয়ে উঠছে; সেটাই লেন্স। বাজারে ধূসর, বাদামি, হ্যাজেল, অ্যাকুয়া, নীল, সবুজ রঙের লেন্স চলছে বেশ। আবার স্বচ্ছ লেন্সেরও চাহিদাও প্রচুর।  তবে লেন্স ব্যবহারের নিম্নের কয়েকটি বিষয় না জানলেই নয়।
* নির্দিষ্ট দ্রবণে কন্টাক্ট লেন্স রাখতে হবে। এতে লেন্স ভেজা থাকবে।  প্রত্যেকের উচিত, লেন্সের সঙ্গে দ্রবণ ও তা সংরক্ষণের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে ফেলা। 
* অপরিস্কার দ্রবণে লেন্স সংরক্ষণ করা যাবে না।
* সাধারণ দ্রবণের মেয়াদ তিন মাস হয়ে থাকে।
* কন্ট্রাক্ট লেন্সের মেয়াদ সম্পর্কে জানুন। মেয়াদহীন লেন্স ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন

* শিশু ও বয়স্ক ছাড়া অন্যরা কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করতে পারবেন। তবে কারও চোখের কর্নিয়ায় যদি কোনো সমস্যা থাকে, তাহলে তিনি একেবারেই কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করতে পারবেন না।
* চোখে কন্টাক্ট লেন্স পরার আগে সাবান দিয়ে ভালোভাবে হাত ধুয়ে নিতে হবে। অসাবধানতাবশত কন্টাক্ট লেন্স হাত থেকে পড়ে গেলে কোনো অবস্থাতেই সেটি আর ব্যবহার করা যাবে না।
* চোখে যতটা কম সময় কন্টাক্ট লেন্স রাখা যায়, ততই ভালো। প্রয়োজন শেষেই কন্টাক্ট লেন্স খুলে রাখুন। একটানা পাঁচ-ছয় ঘণ্টার বেশি সময় কন্টাক্ট লেন্স না পরে থাকাই ভালো।
* যাদের স্বাভাবিকভাবেই পাওয়ার চশমা ব্যবহার করতে হয়, তারা সেই অনুযায়ী পাওয়ারযুক্ত কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করতে পারবেন; তবে সেটিও যত দূর সম্ভব কম সময়ের জন্যই ব্যবহার করা উচিত।
* কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারে যে কোন ধরণের চোখের সমস্যা যত দ্রুত সম্ভব ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

মনে রাখবেন, চোখ মূল্যবান জিনিস।  ফ্যাশনের চেয়ে বেশি দরকার চোখকে ভাল রাখা।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ