স্কুলছাত্রকে হত্যার দুই বছর পর আসামি গ্রেপ্তার

খুন
তৌসিফুল ইসলাম মুন্না  © ফাইল ছবি

গাজীপুরে মহানগরীতে স্কুলছাত্র তৌসিফুল ইসলাম মুন্না (১৪) হত্যার ঘটনার প্রায় দুই বছর পরে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মঙ্গলবার (৮ জুন) গাজীপুর মেট্রোপলিটন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন গ্রেপ্তার দুইজন। এর আগে সোমবার (৭ জুন) ভোররাতে মহানগরীর গাজীপুরা শিকদার মার্কেট ও সুমন মার্কেট এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার দুজন হলেন- ময়মনসিংহ জেলার হালয়াঘাট থানার চকমোকামিয়া গ্রামের কুদ্দুস আলীর ছেলে মো. আনোয়ার হোসেন (২৫) এবং জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ থানার জাকিরপাড়া গ্রামের উসমান আলীর ছেলে মো. মোফাজ্জল (৩১)।

আরো পড়ুন ক্যাম্পাস হত্যাকাণ্ডের প্রথম বিচার পান যিনি

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ১৮ জুলাই সকালে ১৪ বছরের ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র তৌসিফুল ইসলাম মুন্নাকে বাসায় রেখে মা মোছা. হামিদা আক্তার মুকুল ছোট সন্তান তামিমকে স্কুলে নিয়ে যান। আর বাবা মিজানুর রহমান তার বনানীর কর্মস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। গাজীপুর মহানগরীর গাজীপুরা এলাকার হাবিবুর রহমানের মালিকানাধীন বহুতল ভবনে থাকতেন তারা। সকাল সোয়া ১০টার দিকে ছোট সন্তান তামিমকে নিয়ে স্কুল থেকে ফিরে বাসার দরজা বাইরে থেকে আটকানো অবস্থায় দেখতে পান হামিদা। পরে বাসায় প্রবেশ করে তৌসিফুল ইসলাম মুন্নার গলাকাটা রক্তাক্ত নিথর দেহ খাটের ওপর পড়ে থাকতে দেখেন তিনি। পরবর্তীতে এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের অভিযুক্ত করে টঙ্গী পূর্ব থানায় হত্যা মামলা করেন তৌসিফুল ইসলাম মুন্নার বাবা মো. মিজানুর রহমান। নিহত তৌসিফুল ইসলাম মুন্না ঢাকার উত্তরা শাহিন ক্যাডেট স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

ঘটনার দুই বছর পর এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর তাদের আদালতে হাজির করা হলে হত্যাকাণ্ডে নিজেদের সম্পৃক্তার পাশাপাশি অন্যান্য আসামিদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। ফাঁকা ফ্ল্যাটে স্বর্ণালংকার চুরি করার সময় মুন্না তাদের চিনে ফেলে। পরে চুরির অপরাধ ঢাকতেই মুন্নাকে তারা হত্যা করে বলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গাজীপুর পিবিআইয়ের পরিদর্শক মো. হাফিজুর রহমান বলেন, ঘটনায় পর নিহত মুন্নার বাবা মো. মিজানুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে টঙ্গী পূর্ব থানায় মামলা করেন। টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ ক্লুলেস এ মামলাটি দীর্ঘ দুই মাস তদন্ত করেও কোনো কূলকিনারা করতে না পারায় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে মামলাটি গাজীপুর পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করে।

দীর্ঘ ২২ মাস মামলাটি তদন্ত করে গত ৭ জুন ভোররাতে অভিযানে নামে গাজীপুর পিবিআই। অভিযানে আনোয়ার হোসেন ও মোফাজ্জলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গাজীপুর পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাকছুদের রহমান বলেন, মূলত চুরি করার উদ্দেশ্যে বাসায় প্রবেশ করলেও আসামিদেরকে চিনে ফেলায় চুরির অপরাধ আড়াল করার জন্য তৌসিফুল ইসলাম মুন্নাকে হত্যা করা হয়েছে। মামলায় জড়িত অন্যান্য আাসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ