রোজাদার রাইডারকে মারধর, এমপির সাবেক ব্যক্তিগত কর্মকর্তা আটক

শাহিদুর রহমান সুজন
পুলিশের হাতে আটক শাহিদুর রহমান সুজন  © সংগৃহীত

রোজা থাকায় খাবার নিয়ে চারতলায় উঠতে চাননি আব্দুল লতিফ নামে ফুডপান্ডার এক রাইডার। এ কারণে তাকে মারধর করেন এক ব্যক্তি। সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। এরপরই সেই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। তার নাম শাহিদুর রহমান সুজন। তিনি আগে এক সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা ছিলেন। তবে কোন সংসদ সদস্য, তা জানায়নি পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মি‌ডিয়া অ্যান্ড পাব‌লিক রি‌লেশন্স) মো. সো‌হেল রানা। তিনি গণমাধ্যমকে জানান, সচেতন এক নাগরিক ‘বাংলাদেশ পুলিশ অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ’-এর ইনবক্সে একটি ভিডিও পাঠান। তাতে দেখা যায়, সাভারের বনপুকুল এলাকায় এক ব্যক্তি ফুডপান্ডার ডেলিভারি ম্যানকে মারধর করছেন। ভিডিওটি দেখার সঙ্গে সঙ্গেই সাভার থানার ওসি এ এফ এম সায়েদকে নির্দেশনা দেয়।

তাকে এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে বলা হয়। সো‌হেল রানা জানান, সাভার থানার ওসি একটি টিমকে দায়িত্ব প্রদান করেন ব্যবস্থা নিতে। টিম জানতে পারে, ফুডপান্ডার ওই কর্মচারী অভিযুক্ত ব্যক্তির অর্ডারকৃত খাদ্য পৌঁছে দিতে গিয়েছিলেন। অভিযুক্ত সুজন তাকে বাড়ির উপরে গিয়ে প্যাকেটটি দিতে বলে। কিন্তু ফুডপান্ডার কর্মচারী সাইকেল চুরি যেতে পারে সে ভয়ে নিচ থেকে প্যাকেটটি সংগ্রহ করার অুনরোধ করে।

তিনি আরও জানান, অভিযুক্ত ব্যক্তি রেগে গিয়ে নিচে নেমে বেধরড়ক মারপিট করতে থাকেন তাকে। ভিডিওতে ওই কর্মচারীর গায়ে আরও একজনকে হাত তুলতে দেখা গেছে। প্রাথমিকভাবে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ প্রক্রিয়াধীন বলে জানান তিনি।

মারধরের শিকার লতিফ গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, ‘প্রথম রোজার দিন সুজন নামে একজন খাবার অর্ডার দিয়েছেন। আমি খাবার নিয়ে যাওয়ার পর তিনি চার তলা যেতে বলেন। আমি রোজা থাকায় যেতে চাইনি। পরে এসে আমাকে গালিগালাজ করে মারধর করেন। বিষয়টি ফুডপান্ডা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। এ বিষয়ে তারা ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।’


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ