হোটেলে যৌন সম্পর্কের প্রস্তাব ছাত্রীকে, ঢাবি শিক্ষককে অব্যাহতি

সহকারী অধ্যাপক মো. এনামুল হক
সহকারী অধ্যাপক মো. এনামুল হক  © টিডিসি ফটো

যৌন নিপীড়নের অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সঙ্গীত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. এনামুল হককে এক বছরের জন্য অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। বিভাগের একাডেমিক কমিটির সভায় ১৩ জন শিক্ষকের উপস্থিতিতে তাকে সব ধরনের শিক্ষামূলক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

গত বুধবার সংগীত বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. দেবপ্রশাদ দাঁ’র সভাপতিত্বে অ্যাকাডেমিক কমিটির সভায় তাকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়।

অধ্যাপক দেবপ্রশাদ দাঁ বলেন, অধিকাংশ শিক্ষক একমত হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করেছেন তাকে বিভাগের সব ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দিতে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের বিধি মোতাবেক পরবর্তী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।

জানা যায়, সম্প্রতি রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টে বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীকে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দেয়। এসময় ভুক্তভোগী ছাত্রী এনামুল হকের কথোপকথন সেলফোনের সাহায্যে অডিও রেকর্ড করেন।

আরও পড়ুন: ঢাবি ছাত্রীদের ওয়াশরুমে অর্ধনগ্ন ছাত্রলীগ নেতা, অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি

পরে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনে বিভাগীয় চেয়ারপার্সন বরাবর একটি অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে গঠিত তদন্ত কমিটি ঘটনার সত্যতা পায়। গত ১৬ আগস্ট একাডেমিক কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় এনামুল হক তার অপরাধের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় বলেও জানা যায়।

তবে এক বছরের জন্য অব্যাহতিকে যথেষ্ট শাস্তি মনে করছেন না শিক্ষার্থীরা। বিভাগের এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সব ব্যাচের শিক্ষার্থী ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর আরেকটি দরখাস্ত দিয়েছেন। এতে ওই শিক্ষককে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের দাবি জানানো হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল  বলেন, কোনো শিক্ষকের বিরুদ্ধে এটি গুরুতর অভিযোগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী আমরা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেব। এ সব ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময় আমরা সিন্ডিকেট সভা করে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করি।


x

সর্বশেষ সংবাদ