রাবিতে কুয়েট শিক্ষক সেলিম হোসেনের মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্তের দাবি

কুয়েট শিক্ষকের মৃত্যু
শিক্ষক সেলিম হোসেনের মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের বিচারের দাবিতে রাবিতে মানববন্ধন  © টিডিসি ফটো

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরকারি ছাত্রবাহিনীর নিপীড়ন বন্ধে ‌ও খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) শিক্ষক সেলিম হোসেনের মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী চত্ত্বরে এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে ফোকলোর বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আমিরুল ইসলাম বলেন, স্বাধীনতার পর দেশে সামাজিক ন্যায়বিচারকে সামনে রেখে যে নীতিনির্ধারণী গ্রহণ করার কথা বলা হয়েছিল, এখন আমরা দেখছি তার উল্টোটা প্রতিনিয়ত আমরা রাষ্ট্রের প্রত্যেকটি সেক্টরে একচ্ছত্র ক্ষমতাধর রাজনৈতিক সংগঠনের ছাত্রদের দখলদারিত্ব দেখছি।

তিনি আর‌ও বলেন, আমরা শিক্ষকরা আজকে এখানে দাঁড়িয়েছি অধ্যাপক সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে। তাকে যেভাবে মানসিক ভীতি প্রদর্শন ও টর্চার করা হয়েছে এবং একপর্যায়ে তিনি আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে এই জায়গা থেকে বিদায় নিয়েছেন। এর সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

পড়ুন: পরিবারের দাবি, কুয়েট শিক্ষক সেলিমকে হত্যা করা হয়েছে

মানববন্ধনে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সালেহ হাসান নকীব বলেন, তার পরিবার ধ্বংস হয়েছে, তার সহকর্মীরা অনেক কষ্ট পেয়েছেন কিন্তু এর মাধ্যমে যদি একটা শুভ পরিণতির সূচনা হয় তাহলে মনকে শান্ত্বনা দেয়া যায়। অধ্যাপক সেলিম হোসেন হয়ত সংবেদনশীল মানুষ ছিলেন তিনি এ অপমান নিতে পারেননি। যারা অপমান নিতে জানেন তারাই তো বিভিন্ন পদ পদবী পেয়ে থাকেন।

পড়ুন: কুয়েট শিক্ষকের মৃত্যু: দুই হল প্রভোস্টের পদত্যাগ

রাকসু আন্দোলন মঞ্চের সমন্বয়ক আব্দুল মজিদ অন্তরের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আবদুল্লাহ আল মামুন, সহকারী অধ্যাপক কাজী মামুন হায়দার, ফোকলোর বিভাগের অধ্যাপক সহযোগী অধ্যাপক ড.মো. আলমগীর হোসেনসহ বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

 


মন্তব্য

x