ছাত্র প্রতিনিধি না থাকার প্রতিবাদে

শতবর্ষের অনুষ্ঠান বর্জন করলেন ভিপি নুর

শতবর্ষের অনুষ্ঠান বর্জন করলেন ভিপি নুর
ভিপি নুর  © ফাইল ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ডাকসু’র সদ্য সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। অনুষ্ঠানে ছাত্রদের প্রতিনিধি না থাকা ও দলমতের উর্ধ্বে সাবেকদের আমন্ত্রণ না জানানোর অভিযোগ করে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নেন। আজ মঙ্গলবার (৩০ ডিসেম্বর) দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসের সাথে আলাপকালে এ কথা জানান তিনি।

আগামীকাল (১ ডিসেম্বর) থেকে সপ্তাহব্যাপী এ অনুষ্ঠান শুরু হচ্ছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ।

ভিপি নুর জানান, শিক্ষার্থীদেরকে ঘিরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মূল কর্মকাণ্ড পরিচালিত হলেও শতবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিত্বকারী নির্বাচিত 'ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ' (ডাকসু) নেই। যা শতবর্ষের অনুষ্ঠানে বড় একটি অপূর্ণতা। শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি নিশ্চিত না করে শতবর্ষের অনুষ্ঠান আয়োজন করা শিক্ষার্থীদের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দায়িত্বজ্ঞানহীনতার বহিঃপ্রকাশ।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে ধারণ করতেও বর্তমান প্রশাসন চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। শতবর্ষের অনুষ্ঠানে সরকারি দলের বাইরে ঢাবির কৃর্তীমান সাবেক শিক্ষার্থীদের নিমন্ত্রণ না করা বিশ্বিবদ্যালয়ের প্রশাসনের সংকীর্ণ ও দলকানা মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ। যা অত্যন্ত হতাশাজনক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য মর্যাদাহানিকর।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শতবর্ষের অনুষ্ঠানকে একটি সরকার দলীয় অনুষ্ঠানে পরিণত করেছে উল্লেখ করে ভিপি নুর বলেন, সর্বশেষ নির্বাচিত ছাত্র প্রতিনিধি (ভিপি) হিসেবে আমি উক্ত অনুষ্ঠান বর্জন করছি। সেই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে দল নিরপেক্ষ চরিত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ধারণ করে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা ও দ্রুত সময়ের মধ্যে ডাকসু নির্বাচনের উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানাই।


মন্তব্য

x